মৃত্যু হয়েছে ২০০১-য়। অথচ, সেই মৃত ব্যক্তি ‘পাওয়ার অফ অ্যাটর্নি’ দিয়েছেন ২০১৮-য়! শুধু তাই নয়, সেই ব্যক্তির ছবি ও সই ‘নকল’ করে তাঁর জমির মিউটেশন পর্যন্ত করা হয়েছে। এমন অনিয়মে জড়িত অভিযোগে ইউনুস শেখ নামে কাটোয়ার মুলটি কৃষ্ণনগরের এক বাসিন্দাকে বুধবার বাড়ি থেকেই গ্রেফতার করল কাটোয়া থানার পুলিশ।

গত বছর ৭ অগস্ট ব্লক (কাটোয়া ২) ভূমি ও ভূমি সংস্কার আধিকারিক রাহুল দেব বাগুই কাটোয়া থানায় লিখিত অভিযোগে জানান, দিল্লির বাসিন্দা পাপিয়া মুখোপাধ্যায় অভিযোগ জানিয়েছেন, তাঁর প্রয়াত বাবা বনবিহারীবাবুর সই জাল করে মুলটি গ্রামে তাঁদের পৈতৃক সম্পত্তির ‘মিউটেশন’ করিয়েছেন ইউনুস।

পুলিশ এবং ভূমি ও ভূমি সংস্কার দফতরের দাবি, বনবিহারীবাবুর ছবির জায়গায় অন্য একটি ছবি সাঁটিয়ে, ভুয়ো ভোটার কার্ড, প্যান কার্ডের মতো জরুরি নথি জমা দিয়ে এই কাজ করেন ইউনুস। পরে আবার বনবিহারীবাবু তাঁকে ‘পাওয়ার অব অ্যাটর্নি’ দিয়েছেন, তা দেখিয়ে, তাঁর জমি দু’জনকে বিক্রিও করেন ইউনুস, অভিযোগ এমনও। পুলিশের দাবি, ওই পাওয়ার অব অ্যাটর্নিটিও জাল। কারণ, সেটিতে লেখা, ২০১৮-র ৭ মার্চ পাওয়ার অব অ্যাটর্নি দেওয়া হয়েছে। অথচ, ২০০১-এর ২৯ নভেম্বর মৃত্যু হয়েছে বনবিহারীবাবুর।

আইনজীবীরা জানান, বুধবার ধৃতকে কাটোয়া আদালতে তোলা হলে তাঁকে পাঁচ দিন পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারক। পুলিশ জানায়, ইউনুসকে এই সমস্ত নথিপত্র জাল করতে কোনও চক্র ‘সহযোগিতা’ করেছে কি না, খতিয়ে দেখা হচ্ছে তা-ও। জমি কেনার সঙ্গে জড়িতদের বিষয়েও খোঁজখবর রাখা হচ্ছে বলে জানান তদন্তকারীরা। মহকুমা ভূমি ও ভূমি সংস্কার আধিকারিক বীরেন্দ্রনাথ দাস জানান, বিষয়টি নিয়ে বিভাগীয় তদন্তও চলছে।