ফের গাড়ি ও মোটরবাইকে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটল শহরে। রবিবার রাতে দুর্গাপুরের ডিএসপি টাউনশিপে দু’টি আবাসনে গাড়ি ও মোটরবাইকে দুষ্কৃতীরা আগুন ধরিয়ে দেয় বলে অভিযোগ। আকবর রোডে একটি মোটরবাইক ও হর্ষবর্ধন রোডে একটি গাড়িতে আগুন লাগে। গত কয়েক মাস ধরেই শহরের বিভিন্ন জায়গায় বাড়িতে রাখা মোটরবাইক ও গাড়িতে আগুন লাগার ঘটনা ঘটছে। এর জেরে আতঙ্ক তৈরি হয়েছে শহর জুড়ে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, রবিবার গভীর রাতে আকবর রোডে আবাসনের সামনে রাখা একটি দামি মোটরবাইকে আগুন লাগে। অভিযোগ, দুষ্কৃতীরা বাড়ির সামনে রাখা দু’টি সাইকেলও নিয়ে পালায়। বাইকটি ভস্মীভূত হয়ে যায়। গৃহকর্ত্রী জেরিনা বেগম জানান, রাত আড়াইটে নাগাদ তাঁরা আগুন জ্বলতে দেখে ঘর থেকে বেরিয়ে আসেন। তখন দাউদাউ করে জ্বলছিল বাইকটি। আগুন নেভানোর চেষ্টা করেন তাঁরা। তবে বাইকের প্রায় পুরোটাই ভস্মীভূত হয়ে যায়।

ওই বাড়ির সদস্য ইসরাত পারভিন জানান, সম্প্রতি তাঁর ছেলে অসুস্থ হয়ে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়। পরিবারের সবাই সেখানে ছিলেন। সেই সময়ে বাড়ি থেকে কয়েক হাজার টাকা দামের বিদেশি পাখি নিয়ে পালায় দুষ্কৃতীরা। বুধবার তাঁর ছেলের মৃত্যু হয়েছে। বাড়িতে শোকের পরিবেশ। এই পরিস্থিতিতে দুষ্কৃতীরা মোটরবাইক পুড়িয়ে দু’টি সাইকেল চুরি করে নিয়ে যাওয়ায় ভেঙে পড়েছেন তিনি। তিনি বলেন, ‘‘আগুন দেখে বেরোলেও কাউকে দেখতে পাইনি। পুলিশ এসে সব দেখে গিয়েছে।’’ পুলিশ  জানিয়েছে, ঘটনাস্থল থেকে এক জোড়া চপ্পল উদ্ধার হয়েছে।

দিল্লি দখলের লড়াইলোকসভা নির্বাচন ২০১৯ 

ওই এলাকা থেকে সামান্য দূরে হর্ষবর্ধন রোডে একটি আবাসনেও ওই রাতে একটি চার চাকা গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয় দুষ্কৃতীরা। আংশিক পুড়ে গিয়েছে গাড়িটি। দুষ্কতীদের খোঁজ চলছে বলে জানায় পুলিশ।

গত কয়েক মাসে শহর জুড়ে গাড়ি বা মোটরবাইকে আগুন ধরার বেশ কয়েকটি ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ এখনও কাউকে ধরতে না পারায় আতঙ্ক ছড়িয়েছে শহরবাসীর মধ্যে। বাসিন্দারা জানান, ঘেরা গ্যারাজ যাঁদের নেই বা রাতে আবাসনের বাইরে যাঁরা গাড়ি বা মোটরবাইক রাখছেন, সেগুলিতেই দুষ্কৃতীদের নজর পড়েছে। কিন্তু কেন গাড়ি বা মোটরবাইকে আগুন ধরানো হচ্ছে, সে নিয়ে ধন্ধে পুলিশ। রবিবার রাতে দু’টি সাইকেল খোয়া যাওয়ার আগে এই ধরনের ঘটনাগুলিতে চুরির কোনও ঘটনা ঘটেনি। গোটা বিষয়টি নিয়ে ভাবনায় পড়েছেন তদন্তকারীরা।

পুলিশের এক আধিকারিক বলেন, ‘‘সব ক’টি ঘটনারই তদন্ত চলছে। কোনও দুষ্কৃতী চক্র ঘটনায় জড়িত বলে মনে হচ্ছে। তারা ধরা পড়বে।’’