দীর্ঘদিন সংস্কার না হওয়ায় দুর্গাপুরে দামোদরে ডিভিসি ব্যারাজের উপরের রাস্তা বেহাল হয়ে পড়েছে। ফলে, চাপ পড়ছে ব্যারাজের উপরে। দুর্গাপুর থেকে বাঁকুড়া যাওয়ার রাস্তায় যানজটের সঙ্গে বাড়ছে দুর্ঘটনার আশঙ্কাও।

ডিভিসি ব্যারাজ গড়ে ওঠে ১৯৫৫ সালে। লম্বায় ৬৯২ মিটার এই ব্যারাজে গেটের সংখ্যা ৩৪টি। ব্যারাজ গড়ে ওঠায় দুর্গাপুর ও বাঁকুড়ার মধ্যে সরাসরি যোগাযোগের বন্দোবস্ত হয়। ব্যারাজের উপর দিয়েই গিয়েছে দুর্গাপুর থেকে পশ্চিম মেদিনীপুর হয়ে ওড়িশাগামী ৯ নম্বর রাজ্য সড়ক। ব্যারাজের উপরের রাস্তার বেশ কিছু জায়গায় পিচ উঠে গিয়েছে। বেরিয়ে পড়েছে ভিতরের কংক্রিটের মেঝে। খানাখন্দে ভরে গিয়েছে রাস্তা। বৃষ্টিতে জল জমছে সেই সব গর্তে। তার উপর দিয়েই ছুটছে বাস, ট্রাক, গাড়ি, মোটরবাইক। বেহাল রাস্তার জন্য যানজটও হচ্ছে, অভিযোগ যাত্রীদের।

মোটরবাইক আরোহী দেবাশিস দাস বলেন, ‘‘খানাখন্দে পড়ে নিয়ন্ত্রণ হারানোর ভয় তো আছেই। তা ছাড়া ব্যস্ত সময়ে খুব যানজট হয়। অনেক সময় নষ্ট হয়।’’ বাসে ব্যারাজ দিয়ে নিয়মিত যাতায়াত করেন দুর্গাপুরের বেনাচিতির বিধান রায়। তিনি বলেন, ‘‘দীর্ঘদিন ধরে ব্যারাজের রাস্তা বেহাল পড়ে রয়েছে। মাঝে-মাঝে তাপ্পি দেওয়া হয়। কিন্তু কয়েক দিনের মধ্যেই তা উঠে যায়। তাই সমস্যা মেটে না।’’ ট্রাক চালক রাজেশ মণ্ডলের বক্তব্য, ‘‘বেহাল রাস্তায় পণ্য নিয়ে গাড়ি চালাতে সমস্যা হয়। ঝুঁকি নিতে হয়। যন্ত্রাংশ ভেঙে যাওয়ার ভয়ও থাকে।’’ রাস্তাটিক আমূল সংস্কারের দাবি জানিয়েছেন তাঁরা।

দুর্গাপুর পুরসভার ৪ নম্বর বরো চেয়ারম্যান চন্দ্রশেখর বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, সম্প্রতি তিনি পূর্ত দফতরকে ব্যারাজের উপরের রাস্তা সংস্কারের আর্জি জানিয়ে চিঠি দিয়েছেন।