সমাবর্তন নিয়ে বিতর্ক পিছু ছাড়ছে না বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের। একে দুটি বিষয়ের সমাবর্তন বন্ধ রাখার নির্দেশ এসেছে। তার মধ্যে প্রশ্ন উঠেছে খরচ নিয়ে। যদিও বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শীর্ষ আধিকারিকের দাবি, “আপাতদৃষ্টিতে বাড়তি খরচ বলে মনে হলেও বিশ্ববিদ্যালয়ের ঐতিহ্য ও মর্যাদার কথা মাথায় রাখলে খরচ একদমই বেশি নয়।’’

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এ বছর সমাবর্তনের বাজেট ৩২ লক্ষ ৮৯ হাজার ১৪৩ টাকা। তার মধ্যে স্রেফ বিদ্যুৎ সংক্রান্ত বিষয়েই বাজেট ধরা হয়েছে ৬ লক্ষ ২৫ হাজার টাকা। পরিবহণের খরচ ৫০ হাজার টাকা। অন্যান্য খরচ দেখানো হয়েছে দেড় লক্ষ টাকা। এ ছাড়াও স্বর্ণ ও রৌপ্যপদক কিনতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সবচেয়ে বেশি টাকা খরচ হচ্ছে। পদকের জন্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাজেট ১৬ লক্ষ ৪২ হাজার ৬৮৩ টাকা।

জানা গিয়েছে, ১৬০ জন অতিথির দুপুরের খাবারের জন্যে খরচ হবে ১ লক্ষ ১০ হাজার টাকা। অতিথিদের পাতে থাকবে, ফিশ ফ্রাই, চিংড়ি, পাবদা মাছের ঝাল, চিকেন লেগ পিস। সমাবর্তনে হাজির ২০০ জন পুরস্কার প্রাপ্তের জন্যে থাকবে পোলাও, চিকেন কষা, মিষ্টি ও পানীয় জলের বোতল। এর জন্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের খরচ হওয়ার সম্ভাবনা ৬০ হাজার। এ ছাড়াও আমন্ত্রিতদের টিফিন দেওয়ার জন্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের খরচ হবে ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা। বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গিয়েছে, রাজ্যপাল ও তাঁর নিরাপত্তারক্ষীদের জন্যে রাজভবন থেকে পাঠানো তালিকা অনুযায়ী খাবার তৈরি করছে ক্যাটারিং সংস্থা। সব মিলিয়ে সমাবর্তন অনুষ্ঠানে স্রেফ খাবার পিছনে বিশ্ববিদ্যালয়ের খরচ হওয়ার সম্ভাবনা ৩ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের একাংশ কর্মীদের দাবি, অতিথি বা সমাবর্তনের পুরস্কার প্রাপকদের ‘আপ্যায়নে’র প্রয়োজন রয়েছে। কিন্তু আরও সাতশো আমন্ত্রিতদের টিফিন খরচ বাবদ লক্ষাধিক টাকা খরচে আপত্তি রয়েছে তাঁদের। বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শীর্ষ আধিকারিকের দাবি, “সমস্ত বিষয়টাই কর্মসমিতির (ইসি) অনুমতি সাপেক্ষে হচ্ছে। ঐতিহ্যের বিশ্ববিদ্যালয়ের অতিথিদের আপ্যায়ন না করলে কী সম্মান থাকবে!’’