• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

মাধ্যমিকের সময়ে রাস্তার কাজ, দুর্ভোগ 

Road Construction
ইছলাবাদে কাজ চলছে রাস্তায়। নিজস্ব চিত্র

মাধ্যমিক চলাকালীন রাস্তার কাজের জন্য সমস্যার অভিযোগ উঠল বর্ধমানে। শহরের ইছলাবাদ এলাকায় মঙ্গলবারের পরে বুধবারও যানজট হয় বলে অভিযোগ অভিভাবক ও এলাকাবাসীর অনেকের। প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, ভোগান্তির অভিযোগ পেয়ে পরীক্ষা শুরুর আগে ও শেষ হওয়ার পরে কাজ বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, গত বছর বর্ষার আগে, রাস্তা সারানো হয়েছিল। তার পরে মাটি কাটার যন্ত্র দিয়ে রাস্তা খুঁড়ে পানীয় জলের পাইপলাইন বসানো হয়। তাতে রাস্তা বেশ উঁচু-নিচু হয়ে যায়। মাস তিনেক ধরে শহরের বিভিন্ন ভাঙাচোরা পিচের রাস্তা সংস্কারের কাজ শুরু হয়েছে। তা মাধ্যমিকের সময়েও চলছে।

সপ্তাহখানেক আগে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পশ্চিম বর্ধমান জেলায় প্রশাসনিক বৈঠক করতে এসে নির্দেশ দেন, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার দিনগুলিতে পরীক্ষার্থীরা যাতে কোনও অসুবিধায় না পড়ে, প্রশাসনকে সে দিকে নজর রাখতে হবে। রাস্তায় যানজট যাতে না হয়, সে দিকে খেয়াল রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়। কিন্তু বর্ধমানের ২ নম্বর ও ৩ নম্বর ইছলাবাদ এলাকার বাসিন্দাদের অভিযোগ, তাঁদের এলাকায় দেখা যাচ্ছে উল্টো চিত্র। সেখানে যে রাস্তায় কাজ হচ্ছে, তার পাশে রয়েছে ইছলাবাদ হাইস্কুল। সেটি মাধ্যমিকের পরীক্ষাকেন্দ্র। 

জেলা যুব কংগ্রেস সভাপতি গৌরব সমাদ্দার অভিযোগ করেন, রাস্তার কাজ হওয়ায় চূড়ান্ত সমস্যায় পড়ছে পরীক্ষার্থীরা। অনেককে অন্য রাস্তা দিয়ে ঘুরে পরীক্ষাকেন্দ্রে যেতে হচ্ছে। একই অভিযোগ করেন অনেক পরীক্ষার্থীর অভিভাবকেরাও। বিষয়টি জেলা প্রশাসনের নজরে এনেছেন বলে গৌরববাবুর দাবি। 

মহকুমাশাসক (বর্ধমান দক্ষিণ) পুষ্পেন্দু সরকার বলেন, ‘‘পরীক্ষা শুরুর ও শেষ হওয়ার সময়ে রাস্তার কাজ না করার নির্দেশ রয়েছে। মঙ্গল ও বুধবার এই সংক্রান্ত অভিযোগ পেয়ে পরীক্ষার ঘণ্টাখানেক আগেই রাস্তার কাজ বন্ধ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’’ এলাকার অন্যত্রও যাতে ওই সময়ে রাস্তার কাজ না হয়, সে নির্দেশও দেওয়া হয়েছে বলে                জানান তিনি।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন