• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

নেতা গ্রেফতারে থানা ঘেরাও বিজেপির

Locket Chatterjee and Arjun Singh
প্রতিবাদে: থানায় অর্জুন সিংহ ও লকেট চট্টোপাধ্যায়। ছবি: তাপস

বাড়িতে নিষিদ্ধ কাফ সিরাপ রাখার অভিযোগে গত ২ মার্চ বিজেপির চন্দননগর মণ্ডলের যুবনেতা সজল চক্রবর্তীকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। এর প্রতিবাদে শনিবার চন্দননগর থানা ঘেরাও করল বিজেপি। নেতৃত্বে ছিলেন হুগলির সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায় এবং ব্যারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিংহ। থানা ঘেরাওয়ের আগে জ্যোতির মোড়ে সার্কাস মাঠ থেকে বিক্ষোভ-মিছিল করেন তাঁরা। সবশেষে পুলিশ আধিকারিকদের সঙ্গে আলোচনা করে বিজেপি নেতৃত্বের অভিযোগ, মিথ্যা মামলায় সজলকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পুলিশ অবশ্য প্রথম থেকেই জানায়, নির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে সজলকে গ্রেফতার করা হয়। তাঁর বাড়ি থেকে নিষিদ্ধ কাফ সিরাপও উদ্ধার করা হয়েছিল।

লকেটের দাবি, ‘‘মিথ্যা মালায় আমাদের দলীয় কর্মীদের গ্রেফতার করিয়ে তৃণমূল এ রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে অশান্তির চেষ্টা চালাচ্ছে।’’ রাজ্যে কেউ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত না হলেও নানা বিধিনিষেধ আরোপে মানুষকে আতঙ্কিত করে তৃণমূল সরকার পুরভোট এড়াতে চাইছে, এই অভিযোগও তোলেন হুগলির সাংসদ। অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন জেলা তৃণমূল সভাপতি দিলীপ যাদব। তিনি বলেন, ‘‘কেউ অসামাজিক কার্যকলাপ ঘটালে তার বিরুদ্ধে আইনত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে, এটাই স্বাভাবিক। নির্দিষ্ট অভিযোগেই চন্দননগরের ওই বিজেপি নেতাকে পুলিশ ধরেছে। কুৎসা রটিয়ে আমাদের দলের ভাবমূর্তি নষ্ট করা যাবে না।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন