• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

তৃণমূলের গোষ্ঠী বিবাদে বোমাবাজির নালিশ

TMC
প্রতীকী ছবি।

শাসকদলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে বোমাবাজির অভিযোগ উঠল জাঙ্গিপাড়ায়।

শুক্রবার দুপুর থেকে এলাকা দখলকে কেন্দ্র করে ফের তৃণমূলের দুটি গোষ্ঠী জাঙ্গিপাড়ার বাহানায় বোমাবাজিতে জড়িয়ে পড়ে। কোতুলপুর পঞ্চায়েতের শফিক লস্কর নামে এক সদস্য বোমায় জখম হন। তাঁকে শুক্রবার রাতেই জগৎবল্লভপুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বোমাবাজিতে নাম জড়িয়েছে হুগলি জেলা পরিষদের খাদ্য কর্মাধ্যক্ষ আব্দুল জব্বার ও কোতলপুর পঞ্চায়েতের তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি শেখ শমসের। জাঙ্গিপাড়া পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য শেখ মহিউদ্দিনের (বুদো) সঙ্গে শেখ শামসের ও তৃণমূল নেতা শেখ মইনুর ইসলামের (মোনা) পুরনো বিবাদ। অভিযোগ, পঞ্চায়েত ভোটের দিন ঘোষণার পর থেকেই দুই গোষ্ঠীর গ্রাম দখলকে কেন্দ্র করে অশান্তি লেগে রয়েছে।

বোমায় জখম শফিক এলাকায় শেখ মহিউদ্দিন ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত। এ দিন দুপুরে শফিক লস্করের বাড়ির সামনে বোমাবাজির অভিযোগ ওঠে অপর গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে। শেখ মহিউদ্দিনের অভিযোগের তীর আব্দুল জব্বার ও তাঁর দলবলের বিরুদ্ধে। তিনি বলেন, ‘‘ ওঁর প্রশ্রয়েই দুষ্কৃতীদের এত বাড়বাড়ন্ত।’’ অভিযোগ অস্বীকার করে আব্দুল জব্বার বলেন,‘‘আমার বিরুদ্ধে খামোখাই মিথ্যা অভিযোগ করা হচ্ছে। আমি ওই ঝামেলায় নেই।’’

জাঙ্গিপাড়ার কোতলপুর পঞ্চায়েত কন্টেনমেন্ট এলাকা। বারবার এই এলাকায় বোমাবাজির ফলে অস্বস্তিতে পড়েছে তৃণমূল নেতৃত্ব। তৃণমূলের জেলা সভাপতি দিলীপ যাদব বলেন,‘‘এখন অন্যরকম পরিস্থিতি। এই আবহে দল কাউকে রেয়াত করবে না। পুলিশকে ব্যবস্থা নিতে বলেছি।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন