• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

গ্রামীণ হাওড়াতে অমিল দুধও

ulur
উলুবেড়িয়া নিমদিঘি বাজারে ভিড়। ছবি: সুব্রত জানা

লকডাউনের তৃতীয় দিনে হাওড়ায় মুদিখানার দোকানে কালোবাজারির অভিযোগ উঠল। বাগনানের বাইনানে বেশ কয়েকটি মুদিখানার দোকান থেকে অভিযোগ পেয়ে বাগনান-১ ব্লক প্রশাসন এবং বাইনান পঞ্চায়েতের কর্তারা দোকানগুলিতে অভিযান চালান। সাঁকরাইল, আন্দুল এলাকার বাজারের বিভিন্ন দোকানের বিরুদ্ধেও একই অভিযোগ ওঠে। সকাল আটটায় বাজারে বেরিয়েছিলেন দুইল্যার তিমির ঘোষ। তিনি বলেন, ‘‘সব দোকানেই বলছে, জিনিস নেই। এরকম হবে জানলে আগে থেকে জিনিস কিনে রাখতাম।’’

তবে জেলার ওষুধের দোকানগুলি খোলা থাকলেও, দেখা গিয়েছে ক্রেতাদের লম্বা লাইন। দীর্ঘক্ষন লাইনে দাঁড়িয়ে থেকে বিরক্ত হয়ে অনেকে ফিরে আসেন।

পাউরুটি-বিস্কুটের আকাল রয়েছে বলেও অভিযোগ। মিলছে না দুধও। বাগনানের এক দোকানদারের দাবি,  ‘‘জোগান না থাকায় এই সমস্যা।’’

 মুদিখানার দোকানগুলিতে  ভিড় ছিল। উলুবেড়িয়ার এক মুদি দোকানের মালিক বলেন, ‘‘মাসকাবারি জিনিস অনেকে বেশি করে কিনছেন। ফলে সবাইকে জিনিস দেওয়া যাচ্ছে না।’’

 তবে আনাজ এবং মাছের বাজার এ দিন স্বাভাবিক ছিল। বাজার ও দোকানে ভিড় থাকায় পুলিশ কয়েকটি জায়গায় তিন ফুট দূরত্ব বজায় রেখে সকলকে লাইনে দাঁড়াতে বলে।

 এ দিনও বিনা প্রয়োজনে যাঁরা রাস্তায় ঘোরঘুরি করছিলেন,তাঁদের পুলিশ বাড়ি পাঠিয়ে দেয়।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন