• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

হাওড়া হাসপাতালে সংক্রমিত দুই কর্মী-সহ চার জন

Hospital
প্রতীকী ছবি

হাওড়া জেলা হাসপাতালে ফের করোনার আতঙ্ক। এ বার ওই হাসপাতালের দুই কর্মী-সহ চার জন সংক্রমিত হয়েছেন বলে খবর। আক্রান্তদের অন্য দু’জন চিকিৎসাধীন রোগী। দুই কর্মীর এক জন কাজ করেন হাসপাতালের সিটি স্ক্যান বিভাগে এবং অন্য জন চতুর্থ শ্রেণির কর্মী। তাঁদের দু'জনকেই ভর্তি করা হয়েছে উলুবেড়িয়া এবং হাওড়ার গোলাবাড়ি এলাকার দু’টি বেসরকারি হাসপাতালে।

নতুন করে সংক্রমণের পরেও চিকিৎসা পরিষেবা ব্যাহত হবে না বলে দাবি করছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। মাসখানেক আগে করোনা সংক্রমণের জন্য পুরো বন্ধ করা হয়েছিল হাওড়া জেলা হাসপাতাল। হাসপাতালের সুপার, ইমার্জেন্সি মেডিক্যাল অফিসার, একাধিক নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী সংক্রমিত হওয়ায় বেশির ভাগ কর্মীকে কোয়রান্টিনে পাঠাতে হয়। ফলে তখন হাসপাতালের স্বাভাবিক পরিষেবা চালিয়ে যাওয়া সম্ভব ছিল না। সুপার সুস্থ হয়ে ফের কাজে যোগ দেন। তত দিনে দু'সপ্তাহের কোয়রান্টিন কাটিয়ে ধীরে ধীরে বেশির ভাগ কর্মী কাজে যোগ দেন। এর পরে কয়েক ধাপে হাসপাতালের সব বিভাগ চালু হয়েছে। বর্তমানে ফিভার ক্লিনিক চালু করে করোনা সন্দেহে আসা মানুষের চিকিৎসাও করা হচ্ছে।

দিন দুয়েক আগেই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন দু’জন ব্যক্তির করোনা পজ়িটিভ হয়। চিকিৎসার জন্য তাঁদের সত্যবালা আইডি হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এরই মধ্যে শনিবার হাসপাতালের দু’জন কর্মীর লালারসের নমুনা পজ়িটিভ আসে। এ দিকে, নতুন করে কর্মীদের শরীরে সংক্রমণ ছড়ানোয় উদ্বেগ বাড়ছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের।

যদিও হাসপাতালের এক কর্তা জানান, ওই দুই কর্মীর যথাযথ চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এই মুহূর্তে হাসপাতাল ফের বন্ধ করে দেওয়ার আশঙ্কা নেই। কারণ, জেলা হাসপাতাল বন্ধ থাকলে কী ভাবে হাজার হাজার মানুষ সমস্যায় পড়েন, তা দেখা গিয়েছে মাসখানেক আগেই। তাই আক্রান্ত কর্মীদের উপযুক্ত চিকিৎসা এবং তাঁদের সরাসরি সংস্পর্শে আসা সহকর্মীদের কোয়রান্টিনে পাঠানো হয়েছে। কিন্তু চিকিৎসা পরিষেবা স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা করা হবে বলে জানান ওই কর্তা।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন