ছাদে ঘুড়ি ওড়ানোর সময়ে কোনও ভাবে একটি ঘুড়ি পাঁচতলার ছাদের দরজা গলে আটকে গিয়েছিল আবাসনের লিফটের খাঁচার একদম উপরের অংশে। এক যুবক ঘুড়িটি আনতে লিফটের সেই লোহার খাঁচায় নামেন। আর তখনই কেউ লিফট চালু করে দেওয়ায় সেটি সোজা পাঁচতলার উপরে উঠে আসে। ফলে লিফটের ছাদ আর কংক্রিটের ছাদের মধ্যে চেপ্টে যান যুবক। লিফটটিও কোনও কারণে খারাপ হয়ে আটকে যায়। পরে পুলিশ ও দমকল প্রায় এক ঘণ্টার চেষ্টায় ওই যুবককে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়।

বৃহস্পতিবার ঘটনাটি ঘটেছে হাওড়ার শিয়ালডাঙা এলাকায়। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, বাড়ির পাশের এক বহুতলে বন্ধুদের সঙ্গে ঘুড়ি ওড়াতে গিয়েছিলেন বছর তিরিশের বাপন শাসমল। ওই সময়েই একটি ঘুড়ি পাঁচতলার ছাদের দরজা গলে আটকে যায় লিফটের খাঁচার উপরে।

পুলিশ জানিয়েছে, ওই জায়গা থেকে ঘুড়ি আনতে যান বাপন। তখনই লিফট চলতে শুরু করলে তিনি চেপ্টে যান। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে পুলিশ এবং দমকলকর্মীরা। প্রায় এক ঘণ্টা পরে লিফটের ছাদ কেটে যুবককে উদ্ধার করেন দমকলকর্মীরা। গুরুতর আহত অবস্থায় তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় এসএসকেএম হাসপাতালে। হাসপাতাল সূত্রের খবর, তাঁর হাতে এবং বুকে মারাত্মক চোট লেগেছে।  বর্তমানে তিনি ওই হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন।