• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

হুগলি-চুঁচুড়া পুরসভায় বিক্ষোভ বামেদের

নিয়োগ প্রক্রিয়ায় অনিয়মের নালিশ, চিন্তায় চাকরিপ্রার্থীরা

CPM
নিয়োগ প্রক্রিয়ায় অনিয়মের অভিযোগ তুলে বুধবার হুগলি-চুঁচুড়া পুরসভায় বিক্ষোভ সিপিএম-সহ বাম দলগুলির

নিয়োগ প্রক্রিয়ায় অনিয়মের অভিযোগ তুলে বুধবার হুগলি-চুঁচুড়া পুরসভায় বিক্ষোভ দেখাল সিপিএম-সহ বাম দলগুলি। এ দিন সকালে হুগলির পিপুলপাতি মোড় থেকে পাঙ্খাটুলি পর্যন্ত বিক্ষোভকারীরা একটি মিছিল করেন। তারপর পুরসভার সামনে বিক্ষোভ দেখানো হয়। 

হুগলি-চুঁচুড়া পুরসভা সূত্রে খবর, স্থায়ীপদে ৭৬জন কর্মী নিয়োগের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল।  তার মধ্যে মজদুর ৬৭ জন এবং পিওন পদে ৯ জন। সেই মর্মে পুর কর্তৃপক্ষ চলতি বছরের গোড়ায় নোটিস জারি করেন। তার ভিত্তিতে মার্চ মাসের ১ তারিখে চুঁচুড়ার সাতটি ভিন্ন কেন্দ্রে দশ হাজারের বেশি পরীক্ষার্থী পরীক্ষা দেন। ৪১৩ জনকে আজ, বৃহস্পতিবার ইন্টারভিউয়ের জন্য ডাকার কথা।

পুরসভার এই নিয়োগেই সিপিএম অনিয়মের অভিযোগ তুলেছে। সেই নিয়ে   পুরভোটের মুখে আন্দোলনের হুমকি দিয়েছে বামেরা। পুরসভার সিপিএমের বিরোধী দলনেতা সমীর মজুমদারের অভিযোগ, ‘‘গত ৪ মার্চ ইন্টারভিউয়ের জন্য ৪১৩ জনের একটি তালিকা পুরসভার ওয়েবসাইটে বের করা হয়। ওইদিন আরও একটি তালিকায় ৬ জনের নাম প্রকাশ করা হয় ওই সাইটেই। ফের ৬ মার্চ ওই সাইটেই অতিরিক্ত ১৯ জনের রোল নম্বর যুক্ত করে  একটি তালিকা প্রকাশ করা হয়। সরকারি চাকরিতে এইভাবে তালিকা প্রকাশ করা যায় না। আমরা এর বিরুদ্ধে আদালতে যাব।’’

যদিও অভিযোগ অবশ্য উড়িয়ে দিয়েছেন পুরপ্রধান গৌরীকান্ত মুখোপাধ্যায়। তিনি বলেন, ‘‘কোনও পুর কর্তৃপক্ষই ইচ্ছামতো নিয়োগ করতে পারেন না। শ্রম দফতরের বিধি অনুয়ায়ী আমরা নিয়ম মেনে পরীক্ষা নিয়েছি। ইন্টারভিউয়ের পর আমরা পুরো বিষয়টি অনুমোদনের জন্য শ্রম দফতরে পাঠাব। তাঁদের অনুমোদন পেলেই নতুন কর্মীদের নিয়োগের কাজ সম্পূর্ণ হবে। পুরসভার কোনও অনিয়ম নেই।’’

এই পরিস্থিতিতে চাকরিপ্রার্থীরা সিঁদুরে মেঘ দেখছেন। তাঁদের আশঙ্কা, বিষয়টি আদালতে উঠলে নিয়োগ প্রক্রিয়া বাতিল হতে পারে। 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন