পাড়ার মাঠে খেলতে গিয়ে নিখোঁজ হয়ে গিয়েছিল চার বছরের শিশু। এক দিন পরে তার নিথর দেহ ভাসতে দেখা গেল পাড়ারই একটি পুকুরে। শনিবার সকালে ঘটনাটি ঘটেছে বেলুড়ে। 

পুলিশ জানায়, মৃতের নাম রুবেল সাউ। সে বেলুড়ের জঙ্গি সিং গলি এলাকায় জেঠা-জেঠিমার বাড়িতে থাকত। পরিবারের লোকেরা জানান, বেশ কিছু দিন আগে তার মা মানসিক সমস্যায় আক্রান্ত হয়ে বাড়ি ছেড়ে চলে গিয়েছেন। এমনকি, বেপাত্তা হয়ে গিয়েছেন বাবাও। 

স্থানীয় একটি হিন্দি মাধ্যম স্কুলের কেজি-তে পড়ত রুবেল। তার জেঠিমা গায়ত্রীদেবী জানান, শুক্রবার স্কুল থেকে ফিরে খাওয়াদাওয়া সেরে বাড়িতেই ছিল শিশুটি। পৌনে চারটে মাঠে খেলতে বেরোয় সে। সঙ্গে গিয়েছিল তার দিদিও। বেশ কিছু ক্ষণ পরে দিদি বাড়িতে ফিরে এসে জানায়, রুবেলকে পাওয়া যাচ্ছে না।

পুলিশ জানায়, এর পরেই পরিবারের লোকেরা এলাকায় খোঁজ শুরু করেন। কিন্তু কোথাও পাওয়া যায়নি শিশুটিকে। পরে বেলুড় থানায় নিখোঁজ ডায়েরি করেন রুবেলের জ্যেঠা ঘনশ্যামবাবু। এ দিন সকালে তাঁর বাড়ি থেকে কিছুটা দূরেই ৬০ নম্বর ওয়ার্ডের ঠাকুরণ পুকুরে রুবেলের দেহ ভাসতে দেখেন স্থানীয়েরা। এলাকার প্রাক্তন কাউন্সিলর সীমা ভৌমিক বলেন, ‘‘পুকুরটি ঘেরা। বিকেলে লোকজনের ভিড়ও থাকে এলাকায়। এর মধ্যে কী ভাবে সকলের নজর এড়িয়ে শিশুটি পুকুরে নামল, সেটাই বোঝা যাচ্ছে না।’’ 

পুলিশ এসে মৃতদেহটি উদ্ধার করে নিয়ে যায়। প্রাথমিক ভাবে পুলিশের অনুমান, পুকুরে সকলের চোখ এড়িয়ে নেমে তলিয়ে গিয়েছিল শিশুটি। গায়ত্রীদেবী বলেন, ‘‘শিশু দু’টো কোথায় যাবে ভেবে আমাদের কাছেই রেখেছিলাম। এমন হবে ভাবিনি।’’