তৃণমূল-বিজেপি গোলমাল, বিক্ষোভ জাঙ্গিপাড়া থানায়
তৃণমূলের পাল্টা অভিযোগ, ওই বিক্ষোভের ছবি তোলায় মারধর করা হয় তাদের এক কর্মীকে। পুলিশ জানিয়েছে, দু’পক্ষই অভিযোগ জানিয়েছে। তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।  
BJP

জাঙ্গিপাড়া থানায় দলীয় কর্মীদের সঙ্গে বিজেপি প্রার্থী দেবজিৎ সরকার। ছবি: দীপঙ্কর দে

প্রচার-পর্বে বিজেপি-তৃণমূলের অশান্তি ঘিরে বাংলা নতুন বছরের প্রথম দিনে সরগরম হল জাঙ্গিপাড়া। দু’পক্ষেরই বিক্ষোভ চলল থানায়।

দলীয় পতাকা টাঙানোর সময় তাঁদের কর্মীদের তৃণমূল সমর্থকরা মারধর করে বলে অভিযোগ বিজেপির। দোষীদের শাস্তির দাবিতে  থানায় বিক্ষোভ দেখায় তারা। 

তৃণমূলের পাল্টা অভিযোগ, ওই বিক্ষোভের ছবি তোলায় মারধর করা হয় তাদের এক কর্মীকে। পুলিশ জানিয়েছে, দু’পক্ষই অভিযোগ জানিয়েছে। তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। 

তৃণমূল কর্মীদের বিক্ষোভ। ছবি: দীপঙ্কর দে 

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, সোমবার সকালে জাঙ্গিপাড়ার কোতলপুর পঞ্চায়েত এলাকার চাঁচুয়া গ্রামে বিজেপির কর্মীরা দলীয় পতাকা টাঙাচ্ছিলেন।  অভিযোগ, সেই সময় তৃণমূল সমর্থকরা এসে প্রশান্ত মজুমদার, সুজয় মজুমদার এবং তন্ময় পাল নামে তিন বিজেপি কর্মীকে মারধর করে। একজনের পা ভেঙে যায়। সেই সময় শ্রীরামপুরের বিজেপি প্রার্থী দেবজিৎ সরকার দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের সঙ্গে মশাটে প্রচারে ব্যস্ত ছিলেন। খবর পেয়ে তিনি জাঙ্গিপাড়া থানায় এসে দোষীদের গ্রেফতারের দাবিতে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। পুলিশ ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিলে বিক্ষোভ থামে। তৃণমূলের পাল্টা অভিযোগ, অভিজিৎ দে নামে দলের কর্মীকে মারধর করে বিজেপির বিক্ষোভকারীরা। খবর পেয়ে আসরে নামেন তৃণমূলের জাঙ্গিপাড়ার বিধায়ক স্নেহাশিস চক্রবর্তী। তিনি সদলবলে অভিযুক্তদের গ্রেফতারের দাবিতে থানায় গিয়ে বিক্ষোভ দেখান। তাঁর অভিযোগ, ‘‘আমাদের কেউ অন্যায় করলে তাঁর শাস্তি প্রাপ্য। বিরোধীদের কেউ আমাদের মারধর করলে, তিনিও যেন শাস্তি পান।’’

শ্রীরামপুরের বিজেপি প্রার্থী দেবজিৎ সরকার বলেন, ‘‘পুলিশ ২৪ ঘণ্টার মধ্যে অভিযুক্তদের গ্রেফতার না করলে ফের থানা ঘেরাও করব।’’  

২০১৪ লোকসভা নির্বাচনের ফল

  • সকলকে বলব ইভিএম পাহারা দিন। যাতে একটিও ইভিএম বদল না হয়।

  • author
    মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তৃণমূলনেত্রী

আপনার মত