গঙ্গায় স্নান করতে নেমে তলিয়ে যাচ্ছিল ছোট ভাই। তা দেখে ভাইকে উদ্ধার করতে জলে ঝাঁপ দেন দাদা। কিন্তু স্রোতের টানে ভাইয়ের সঙ্গে তলিয়ে যান দাদাও। রাত পর্যন্ত খোঁজ মেলেনি দু’জনেরই। শনিবার দুপুরে ঘটনাটি ঘটেছে হাওড়ার বি গার্ডেনে।

পুলিশ জানায়, কলেজঘাট রোডের নস্করপাড়ার বাসিন্দা নন্দকিশোর সিংহের দুই সন্তান নবীন সিংহ (১৮) ও প্রবীণ সিংহ (১৫)। নবীন এ বার উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করেছেন। প্রবীণ স্থানীয় জৈন বিদ্যালয়ের একাদশ শ্রেণির পড়ুয়া। এ দিন দুপুরে দুই ভাই একসঙ্গে বি গার্ডেনের এক নম্বর ঘাটে স্নান করতে গিয়েছিলেন। তাঁদের সঙ্গে আরও দু’জন ছিলেন। প্রত্যক্ষদর্শীরা পুলিশকে জানান, নবীন স্নান করে পাড়ে উঠে পড়েছিলেন। সেই সময়ই আচমকা প্রবীণকে স্রোতের টানে ভেসে যেতে দেখেন দাদা নবীন। ভাইকে বাঁচাতে জলে ঝাঁপ দিলে তিনিও ভেসে যান। দুই ভাইকেই তলিয়ে যেতে দেখে অন্যেরা তাঁদের বাঁচাতে চেষ্টা করেন। তবে কাউকেই উদ্ধার করা যায়নি।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে বি গার্ডেন থানার পুলিশ। ডুবুরি নামিয়ে ও স্পিডবোট দিয়ে সন্ধ্যা পর্যন্ত তল্লাশি চালিয়েও খোঁজ মেলেনি দুই ভাইয়ের। সেই সময়ে গঙ্গার ঘাটে ভিড় জমান স্থানীয় বাসিন্দারা। তাঁরা জানান, এর আগেও ওই ঘাটে তলিয়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। দুই ছেলের তলিয়ে যাওয়ার খবর পেয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন বাবা-মা। বারবার জ্ঞান হারাচ্ছেন মা রীতাদেবী। তিনি বলেন, ‘‘ওরা সাঁতার জানত না। গঙ্গায় স্নান করতে বারণ করতাম। বারণ না শুনে আজও স্নান করতে গিয়েছিল। আমার সব শেষ হয়ে গেল।’’