• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

শিক্ষক নিগ্রহে গ্রেফতার ১

lynching
ফাইল চিত্র

Advertisement

বার্ষিক পরীক্ষা চলাকালীন পোলবার বীরেন্দ্রনগর উচ্চ বিদ্যালয়ে ঢুকে তাণ্ডব চালানো এবং শিক্ষকদের মারধরের অভিযোগে এক জনকে গ্রেফতার করল পুলিশ। বুধবার রাতেই পোলবার কাশ্বাড়া গ্রাম থেকে রাকেশ গড়াই নামে ওই যুবককে ধরা হয়। পুলিশ জানিয়েছে, বাকি অভিযুক্তদের খোঁজে তল্লাশি চলছে। 

শিক্ষকেরা অনিয়মিত ভাবে আসছেন, এই অভিযোগ তুলে বুধবার বেলা সাড়ে এগারোটা নাগাদ ওই স্কুলে ঢুকে তাণ্ডব চালায় একদল যুবক। তারা স্কুলেরই প্রাক্তন ছাত্র এবং এলাকায় বিজেপি সমর্থক হিসেবে পরিচিত। যদিও বিজেপি ঘটনায় দলের কেউ যুক্ত নয় বলে দাবি করেছে।

প্রধান শিক্ষক সব্যসাচী সেনগুপ্ত জানান, তিনি অফিসে কাজ করছিলেন। ওই যুবকেরা এসে প্রথমেই তাঁর টেবিলে থাকা স্কুলের হাজিরা-খাতা দেখে তাঁকে গালিগালাজ করতে থাকে। অভিযোগ, তারপরেই ওই যুবকেরা সব্যসাচীবাবুর জমার কলার ধরে। ভয়ে তিনি স্টাফ-রুমে চলে যান। যুবকেরা সেখানেও হানা দেয়। তাঁর সহকর্মীরা সেই ছবি তোলায় মোবাইল ভেঙে দেওয়া হয়। শিক্ষক মনোজিৎ কর্মকার এবং প্রসেনজিৎ কুণ্ডুকে ওই যুবকেরা মারধর করে ফাইলপত্র তছনছ করে বলে অভিযোগ।

জেলা স্কুল পরিদর্শক লক্ষ্মী ধর দাস জানিয়েছেন, ওই স্কুলের ঘটনার কথা শুনে বৃহস্পতিবারই তিনি দফতরের দুই অফিসারকে তদন্তের জন্য স্কুলে পাঠান। তাঁদের দেওয়া রিপোর্ট রাজ্য শিক্ষা দফতরে পাঠিয়ে দেওয়া হবে। স্কুলে এ ভাবে হামলা মানতে পারছেন না অভিভাবকেরা। তাঁদের মধ্যে দিলীপ সেন বলেন, ‘‘শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ঢুকে শিক্ষকদের মারধর করা লজ্জাজনক ঘটনা। স্কুলের বদনাম করতেই এটা করা হয়েছে।’’

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন