জট কাটিয়ে অবশেষে কেএমডিএ ও পুরসভার যৌথ উদ্যোগে শুরু হল তারকেশ্বর মন্দির সংলগ্ন এলাকার সংস্কার। তারকেশ্বর উন্নয়ন পর্ষদ (টিডিএ) সূত্রে জানা গিয়েছে, মোট ৮ কোটি টাকা খরচ করে দুধপুকুর সংলগ্ন রেলিং, রাস্তা, পার্কিং লটের কাজ চলছে। দখলদারদের জমির ব্যবস্থা করে দিয়েছেন মন্দির কর্তৃপক্ষই।

কাজে খুশি মন্দিরের মহন্ত মহারাজ শ্রীশ্রী সুরেশ্বর আশ্রমও। তিনি বলেন, ‘‘এ বার মন্দিরের যে কাজ হয়েছে তা সন্তোষজনক।’’ তারকেশ্বরের পুরপ্রধান স্বপন সামন্তের দাবি, ‘‘পুরসভা এবং কেএমডিএ, মন্দির কর্তৃপক্ষের সঙ্গে সমন্বয় রেখে কাজ করছে। মন্দির আগামী দিনে অন্য চেহারা নেবে।’’

পার্কিং লটের দখলকারীদের সরানো এবং দুধপুকুর সংলগ্ন এলাকায় জমি দেওয়া নিয়ে তারকেশ্বর মন্দির ও পুরসভার মধ্যে মতভেদ হয়েছিল। সেই সময় মহন্ত মহারাজ আপত্তি করেছিলেন কাজের পদ্ধতি ও নকশা নিয়ে। দুধপুকুরের পাশে পুণ্যার্থীদের বসার জায়গা তৈরি নিয়েও আপত্তি তুলেছিলেন মন্দির কর্তৃপক্ষ। 

টিডিএ-র চেয়ারম্যান ফিরহাদ হাকিম এবং মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে মহন্ত মহারাজের আলোচনার পর জট কাটে। মহন্ত মহারাজ বলেন,‘‘তারকেশ্বর মন্দিরের জমি নিয়ে ২০০২ সালের একটা মামলা আছে। আদালতের নির্দেশের বাইরে গিয়ে কিছু করা যায় না। সেটাই আধিকারিকদের জানিয়েছিলাম।’’

মন্দির সূত্রে জানা গিয়েছে, এর আগে মেলা ও উৎসবরের দিনগুলিতে পুণ্যার্থীদের মন্দিরে এক দিক দিয়েই প্রবেশ করানো হত। সেই রীতি এ বার বদলাচ্ছে। মহন্ত মহারাজের কথায়, ‘‘মেলার সময় ভিড়ে অনেকেই অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাই শুধুমাত্র মেলা এবং অন্য উৎসবের সময় পুণ্যার্থীদের ঢোকা ও বেরনোর পথটা বদলে দেওয়া হচ্ছে।’’