ফের চালু হতে চলেছে চন্দননগরের রূপলাল নন্দী ক্যানসার হাসপাতাল। সূত্রের খবর, আগামী ১৫ নভেম্বর থেকে সেটি চালু হবে। তার আগে চলতি মাসেই সেখানে ক্যানসার নির্ণয় শিবির হবে। 

শুক্রবার কলকাতায় চিত্তরঞ্জন ক্যানসার হাসপাতালের পদস্থ কর্তাদের নিয়ে একটি বৈঠকে বিষয়টি চূড়ান্ত হয়। ওই বৈঠকে চিত্তরঞ্জন ক্যানসার হাসপাতালের ডিরেক্টর জয়ন্ত চক্রবর্তী-সহ পদস্থ কর্তারা হাজির ছিলেন। সেখানে স্থির হয় মোট দু’জন চিকিৎসক-সহ অন্য কর্মীদের দিয়ে চন্দননগরের হাসপাতালটিতে ২০টি শয্যা চালু হবে। রেডিয়োথেরাপি ইউনিটও চালু করা হবে। চন্দননগরের বাসিন্দা, সমাজকর্মী বিশ্বজিৎ মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘‘রূপলাল নন্দী ক্যানসার হাসপাতাল ফের খুলছে। দিনক্ষণ চূড়ান্ত হয়ে গিয়েছে। আমরা জানিয়েছি, এই সিদ্ধান্তের 

কোনও রকম অনথ্যা হলে আমরা অনশনে বসব।’’

চন্দননগরে দান করা সম্পত্তিতে ক্যানসার হাসপাতালটি চলত। হুগলি ছাড়াও বর্ধমান, উত্তর ২৪ পরগনা এবং নদিয়া থেকেও রোগী আসতেন। কয়েক বছর আগে কেন্দ্রের আর্থিক সাহায্যে চলা ওই হাসপাতাল থেকে সব চিকিৎসক এবং কর্মীকে তুলে নেওয়া হয় কলকাতার চিত্তরঞ্জন ক্যানসার হাসপাতালে। পরিষেবায় সঙ্কট দেখা দেয় চন্দননগরের হাসপাতালটিতে। পরিস্থিতি 

এমন দাঁড়ায়, রূপলাল নন্দীর 

পরিবার থেকে ওই সম্পত্তি ফিরিয়ে নেওয়ার কথা ওঠে। চন্দননগরের বিভিন্ন সংগঠনের প্রতিনিধিরা আন্দোলনে নামেন। শেষে বরফ গলে শুক্রবারের বৈঠকে।