যথেচ্ছ টাকা নিয়েও প্রতিশ্রুতি পালন করেননি কাউন্সিলরের স্বামী। এই অভিযোগ তুলে টাকা ফেরতের দাবিতে মঙ্গলবার তারকেশ্বরে বিক্ষোভ দেখালেন টোটো চালকেরা। থানার সামনে স্লোগান চলল। অভিযুক্ত শ্রীকান্ত গোস্বামী অভিযোগ মানেননি।

শ্রীকান্তবাবু তারকেশ্বর পুরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলর পুতুল গোস্বামীর স্বামী। মাস দু’য়েক আগেও টোটো চালকেরা তাঁদের বাড়ির সামনে বিক্ষোভ দেখায়িছিলেন। থানায় অভিযোগ জানানো হয়েছিল। পুলিশ ব্যবস্থা না নেওয়ায় এ দিন তাঁরা রাস্তায় নামেন বলে বিক্ষোভকারীদের দাবি।

এ দিন দুপুর তিনটে নাগাদ শ’দুয়েক টোটো চালক তারকেশ্বর নতুন বাসস্ট্যান্ড থেকে মিছিল করে জয়কৃষ্ণ বাজার হয়ে থানার সামনে যান। বিক্ষোভকারীদের অভিযোগ, টোটো রাস্তায় নামানোর সময় শ্রীকান্তবাবুকে গাড়ি পিছু ২০ হাজার টাকা করে দিতে হয়েছে। বিজেপি প্রভাবিত টোটো চালক সংগঠনের যুগ্ম সভাপতি গৌতম চোংদারের অভিযোগ, ‘‘টাকার বিনিময়ে নির্বিঘ্নে গাড়ি চালানোর আশ্বাস দিয়েছিলেন শ্রীকান্ত গোস্বামী। কিন্তু কোনও সমস্যায় পড়লে উনি পাশে দাঁড়াননি। তা ছাড়া, নিজেদের আর্থিক স্বাচ্ছন্দ্য দেখতে গিয়ে এত সংখ্যক টোটো নামানো হয়েছে যে, কেউ পর্যাপ্ত উপার্জন করতে পারছেন না।’’ টাকা ফেরতের পাশাপাশি নতুন করে আর যাতে টোটো রাস্তায় না নামে, সেই দাবি ওঠে। এক টোটো চালক বলেন, ‘‘টোটোর সংখ্যা বেড়েই চলেছে। আমাদের রুজিতে টান পড়েছে। উনি কোনও প্রতিশ্রুতি রাখেননি। আমাদের টাকা ফেরত দিতে হবে। টাকা না পেলে ফের রাস্তায় নামব।’’

অভিযোগ উড়িয়ে শ্রীকান্ত গোস্বামীর বক্তব্য, ‘‘ওরা মিথ্যা অভিযোগ করেছে। পুলিশ তদন্ত করলেই তা বোঝা যাবে।’’ পুলিশের দাবি, তদন্ত চলছে।