কাটমানির টাকা ফেরত না পেয়ে তৃণমূলের পঞ্চায়েত সমিতির সদস্যের বাড়িতে আগুন লাগানোর অভিযোগ উঠল এলাকাবাসীর বিরুদ্ধে।

তবে তৃণমূলের দাবি, আগুন লাগিয়েছে বিজেপি কর্মীরা। আগুনের তাপে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি পঞ্চায়েত সদস্য মঞ্জু প্রধান এবং তাঁর এক আত্মীয়া। বৃহস্পতিবার সকালে পটাশপুর-২ ব্লকের পিন্ডুরুই গ্রামে ওই ঘটনা ঘটে। 

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, পটাশপুর-২ পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য মঞ্জুর বিরুদ্ধে বিভিন্ন সরকারি প্রকল্পে কাটমানি নেওয়ার অভিযোগ তোলে স্থানীয় কিছু বিজেপি কর্মী এবং এলাকার কিছু বাসিন্দা। রাস্তা নির্মাণ থেকে আবাস যোজনা, শৌচাগার নির্মাণে ওই কাটমানি নেওয়া হয়‌ছে এই অভিযোগে একাধিকবার মঞ্জুর বাড়িতে গিয়ে বিজেপির লোকজন টাকা ফেরত চায়। বুধবারও মঞ্জুর বাড়িতে গিয়ে তারা মঞ্জুর স্বামী সুকুমার প্রধানকে সেদিন বিজেপির মিটিংয়ে থাকার জন্য চাপ দেয়। কিন্তু মঞ্জু এবং তাঁর পরিবার বিজেপির মিটিং যাননি।

অভিযোগ, বৃহস্পতিবার সকালে এলাকার বেশ কিছু বাসিন্দা এবং বিজেপির কর্মীরা প্ল্যাকার্ড এবং ব্যানার নিয়ে মঞ্জুর বাড়ির সামনে এসে কাটমানি ফেরতের দাবি জানাতে তাকে। মঞ্জুদেবী এবং তাঁর স্বামী প্রতিবাদ করলে তাঁদের ঘিরে বিক্ষোভ শুরু হয়। সেই সঙ্গে কেন তাঁরা বিজেপির মিটিংয়ে গরহাজির ছিলেন তা জানতে চাওয়া হয়। এই নিয়ে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে মঞ্জুর পরিবারের লোকজনের ধস্তাধস্তি শুরু হয়। অভিযোগ তারই মাঝে বিজেপির কয়েকজন মঞ্জুরদেবীর খড়ের ঘরে আগুন লাগিয়ে দেয়। গ্রামবাসীরা পাম্প চালিয়ে জল দিয়ে আগুন নেভানোর চেষ্টা করে। আগুনে বাড়ির অনেকাংশ পুড়ে গিয়েছে। আসবাবপত্র, চালের বস্তা থেকে গুরুত্ব পূর্ণ নথিপত্র পুড়ে নষ্ট হয়ে গিয়েছে বলে মঞ্জুদেবীর পরিবার সূত্রে খবর। আগুনের তাপে মঞ্জু দেবী এবং তাঁর পিসিমা অসুস্থ হয়ে পড়লে তাঁদের পটাশপুর ব্লক প্রথামিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়। তবে আগুন লাগার ঘটনায় রাত পর্যন্ত মঞ্জুদেবীর পরিবার বা তৃণমূলের তরফে থানায় কোনও অভিযোগ দায়ের হয়নি।

মঞ্জুর স্বামী সুকুমার বলেন, ‘‘বিজেপির লোকেরা কাটমানি ফেরতের দাবিতে সকালে বাড়ির সামনে বিক্ষোভ দেখাচ্ছিল। প্রতিবাদ করলে তারা আমাকে এবং আমার স্ত্রীকে ধাক্কাধাক্কি করে। কয়েকজন বিজেপি কর্মী পিছন দিক থেকে গিয়ে বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়। দোষীদের উপযুক্ত শাস্তি চাই।’’ পটাশপুর-২ ব্লকের তৃণমূল সভাপতি চন্দন সাউ বলেন, ‘‘বিজেপির লোকেরা উস্কানি দিয়ে এলাকাবাসীদের জড়ো করে উত্তেজনা তৈরি করেছিল। তারই মধ্যে কয়েকজন বিজেপি সমর্থক মঞ্জুর বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়।’’ 

বিজেপির অবশ্য দাবি, কাটমানি ফেরতের ভয়ে নিজেরাই ঘরে আগুন লাগিয়ে তাদের উপরে দোষ চাপাচ্ছেন মঞ্জুদেবী ও তাঁর পরিবার। পটাশপুর-২ ব্লক বিজেপির মণ্ডল সভাপতি অমলেন্দু দাস বলেন, ‘‘এই ঘটনায় বিজেপির কেউ যুক্ত নয়। এলাকার মানুষ কাটমানির টাকা ফেরত চাইতে গেলে ওরা নিজেরাই বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়। এখন বিজেপিকে দুষছে।’’