একদিকে চলছিল বিয়ের প্রীতিভোজের অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি, অন্য দিকে রক্তদান শিবির।

বিয়ের প্রীতিভোজের অনুষ্ঠানের দিনেই রক্তদান শিবিরের আয়োজন করে নজর কাড়ল মেদিনীপুরের নজরগঞ্জের প্রামাণিক পরিবার। ডেবরার বিষ্ণুপুরের কুহেলী দাঁ-এর সঙ্গে বিয়ে হয়েছে মেদিনীপুরের নজরগঞ্জের অনিমেষ প্রামাণিকের। সোমবার ছিল প্রীতিভোজ। এ দিন সন্ধ্যায় জুগনুতলার এক লজে প্রীতিভোজ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সকালে এই লজেই হয়েছে রক্তদান শিবির। শিবিরে সহায়তা করে মেদিনীপুর মেডিক্যালের ব্লাড ব্যাঙ্ক। অনিমেষের বাবা রাধানাথ প্রামাণিক বছর তিনেক আগে মারা গিয়েছেন। রাধানাথবাবুর স্মরণে শিবিরটি হয়।

বিয়ের কার্ডেও অনুষ্ঠানসূচির পাশাপাশি রক্তদান শিবির আয়োজনের কথা উল্লেখ করা হয়। প্রীতিভোজের অনুষ্ঠানে স্বেচ্ছায় রক্তদান শিবির হবে-এ কথা জানিয়ে স্বেচ্ছায় রক্তদাতাদের রক্তদান শিবিরে অংশগ্রহণ করার অনুরোধ জানানো হয়। অনুরোধে সাড়া দেন অনেকে। অনিমেষ ‘মেদিনীপুর ছাত্র সমাজ’ নামে এক সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত। ওই সংস্থাও শিবির আয়োজনে সহায়তা করে।  প্রীতিভোজের অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি দেখার ফাঁকে অনিমেষ বলছিলেন, "সমাজসেবামূলক কর্মসূচি করতে ভাল লাগে। সেই ভাল লাগা থেকেই এই রক্তদান শিবিরের আয়োজন।" শিবিরের আয়োজন দেখে খুশি নববধূ কুহেলিও। তাঁর কথায়, ‘‘ এই ধরনের কর্মসূচি ভাল লাগে।’’