• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

আক্রান্ত ৯, বাড়ি ফিরলেন ৫

med
প্রতীকী ছবি

মাঝে একদিনের বিরতি। ফের ঝোড়ো ইনিংস শুরু করেছে করোনা। বুধবার তমলুকের শহিদ মাতঙ্গিনী ব্লক এলাকাতেই সাত জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এছাড়া, মহিষাদল এবং কাঁথি এলাকার একজন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন বলে স্বাস্থ্য দফতর সূত্রের খবর। তাঁদের পাঁশকুড়ায় বড়মা করোনা হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। অন্য দিকে, এ দিনই জেলার পাঁচ জন ব্যক্তি সুস্থ হয়ে ওই হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছেন।

জেলা স্বাস্থ্য দফতর সূত্রের খবর, শহিদ মাতঙ্গিনী ব্লকের বল্লুক-১ গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় দু’জন, কাখরদা গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার-২ জন, বল্লুক-২ গ্রাম পঞ্চায়েত, শান্তিপুর-১ গ্রাম পঞ্চায়ত ও রঘুনাথপুর-২ গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার একজন করে মোট ৭ জনের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। এঁদের অধিকাংশই সম্প্রতি মহারাষ্ট্র থেকে ফিরেছিলেন। ছিলেন স্থানীয় স্কুলে নিভৃতবাসে। মঙ্গলবার রাতে সকলের করোনা পজ়িটিভ রিপোর্ট আসে। আক্রান্তদের কারও করোনা উপসর্গ নেই।

 শহিদ মাতঙ্গিনী ব্লকের বল্লুক-১ পঞ্চায়েত এলাকার এক পান ব্যবসায়ী বৃদ্ধ করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন। পরে ওই এলাকায় ১৩ জন আক্রান্ত হন। তবে সকলে চিকিৎসায় সুস্থ হন। এর পরে ওই এলাকায় এতদিন  করোনা আক্রান্তের প্রবণতা কিছুটা কম ছিল। ফের একসঙ্গে এতজন আক্রান্তের হদিস মেলায় এলাকাবাসীর উদ্বেগ বেড়েছে।                                                   

পূর্ব মেদিনীপুর জেলার মুখ্যস্বাস্থ্য  আধিকারিক নিতাইচন্দ্র মণ্ডল বলেন, ‘‘শহিদ মাতঙ্গিনী ব্লক এলাকায় সাত জন-সহ অন্যদের পাঁশকুড়া করোনা হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। আক্রান্তদের  সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদের চিহ্নিত করে করোনা পরীক্ষা করার ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।’’

জেলা মুখ্যস্বাস্থ্য আধিকারিক আরও জানান, চণ্ডীপুর ব্লকের দু’জন, ভগবানপুর-২ ব্লকের দু’জন ও এগরা-১ ব্লকের একজন রয়েছে এ দিন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। এখন বড়মায় ৪৮ জন করোনা আক্রান্ত চিকিৎসাধীন।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন