• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কঙ্কাল বেরনো দেহ প্রৌঢ়ের

Skeleton
প্রতীকী ছবি।

একশো দিনের কাজের সময়ে জঙ্গল থেকে একটি কঙ্কাল বেরিয়ে যাওয়া মৃতদেহ উদ্ধার করলেন গ্রামবাসী। দেহটি পটাশপুরের শ্রীরামপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের বড়পাথর ঘাটা গ্রামের বাসিন্দার কৃষ্ণপ্রসাদ পাহাড়ির (৫১) বলে দাবি করেছেন তাঁর পরিজন।  কৃষ্ণপ্রসাদ প্রায় দু’সপ্তাহ ধরে নিখোঁজ ছিলেন।

পুলিশ সূত্রের খবর, কৃষ্ণপ্রসাদ গত ২৬  সেপ্টেম্বর বাড়ি থেকে বেরিয়ে নিখোঁজ হয়ে যান। তিনদিন ধরেও তাঁর খোঁজ না মেলেই পরিজন ২৯ সেপ্টেম্বর পটাশপুর থানায় নিখোঁজের অভিযোগ দায়ের করেন। এ দিন কৃষ্ণপ্রসাদের বাড়ি অদূরে ১০০ দিনের কাজ করছিলেন গ্রামবাসীরা। সে সময় পাশের জঙ্গল থেকে তাঁরা পচা গন্ধ পান। গ্রামবাসীরা কারণ খুঁজতে জঙ্গলে গিয়ে একটি পুকুর ধারে  কঙ্কাল বেরিয়ে যাওয়া একটি দেহ উদ্ধার করেন। খবর পেয়ে কৃষ্ণপ্রসাদের পরিজন সেখানে যান। তাঁরা কঙ্কালের গায়ের পোশাক দেখে দাবি করেন, সেটি কৃষ্ণপ্রসাদের।

ঘটনাস্থলে যায় পুলিশ। তবে ঠিক কী কারণে ওই ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে,  সেই বিষয়ে পুলিশের তরফে এখনও  কিছু জানানো হয়নি। পুলিশ অস্বাভাবিক মৃত্যু মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু করেছে। দেহটি ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। এগরার এসডিপিও মহম্মদ বৈদুজামান বলেন, ‘‘ঘটনায় অস্বাভাবিক মৃত্যু মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু হয়েছে। ময়নাতদন্তের পরে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে।’’ 

বাড়ির অদূরে এভাবে কঙ্কাল বেরিয়ে যাওয়া দেহ উদ্ধারে হতবাক কৃষ্ণপ্রসাদের পরিবার। তাঁর জেঠু ফণিভূষণ পাহাড়ি বলেন, ‘‘দুসপ্তাহ ধরে ভাইপো নিখোঁজ ছিল। থানায় নিখোঁজের অভিযোগও দায়ের করা হয়েছিল। তবে কী কারণে ওঁর মৃত্যু হয়েছে, তা আমাদের জানা নেই।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন