• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

নন্দীগ্রাম ও পাঁশকুড়ায় বিজেপির সভা, মিছিল

আজ শুভেন্দুর খাসতালুকে দিলীপ

1
দিলীপ ঘোষ। ফাইল চিত্র।

দলের রাজ্য সভাপতি পদে পুনরায় নির্বাচিত হয়েছেন বিজেপির দিলীপ ঘোষ। বৃহস্পতিবার দ্বিতীয়বার ফের রাজ্য সভাপতি পদে বসার একদিন পরেই আজ,শনিবার তৃণমূলের খাসতালুক নন্দীগ্রাম এবং পাঁশকুড়ায় দলের কর্মসূচিতে যোগ দেবেন দিলীপ। জাতীয় নাগরিক পঞ্জি ও নতুন নাগরিকত্ব আইনের সমর্থনে দিলীপের পদযাত্রা কর্মসূচি ঘিরে নন্দীগ্রাম এবং পাঁশকুড়ায় দলের তরফে জোর প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

রাজনৈতিক দিক থেকে দিলীপের এই কর্মসূচি বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছে জেলার রাজনৈতিক মহল। কারণ রাজ্যের পরিবহণ মন্ত্রী তথা জেলা তৃণমূলের কাণ্ডারি শুভেন্দু অধিকারীর বিধানসভা কেন্দ্র নন্দীগ্রাম। এই নন্দীগ্রামেই জমি রক্ষার আন্দোলনের পথ ধরে পূর্ব মেদিনীপুরে তৃণমূলের উত্থান। লোকসভা ভোটের পর থেকে দুই নেতার বাকযুদ্ধেরও সাক্ষী জেলার মানুষ। ফলে বিজেপি রাজ্য সভাপতি পদে ফের বসার পরেই দিলীপের নন্দীগ্রাম কর্মসূচি ঘিরে রাজনৈতিক মহলেও কৌতূহল তৈরি হয়েছে। জাতীয় নাগরিক পঞ্জি ও নতুন নাগরিকত্ব আইনের সমর্থনে কয়েকদিন আগে শুভেন্দুর এলাকা কাঁথি শহরে মিছিল করেছিলেন দিলীপ। পাল্টা কাঁথিতেই নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ মিছিল করেন শুভেন্দু। তার রেশ কাটার আগেই শুভেন্দুর বিধানসভা কেন্দ্র নন্দীগ্রামে দিলীপের এই কর্মসূচি পাল্টা চাপের কৌশল বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

সদ্য রাজ্যে তিন বিধানসভার উপ-নির্বাচনে দিলীপের ছেড়ে আসা বিধানসভা কেন্দ্র খড়্গপুরে বিপুল ব্যবধানে জিতেছে তৃণমূল। যে জয়ের জন্য কৃতিত্ব দেওয়া হচ্ছে শুভেন্দুকে। তাই বিজেপির তরফে পাল্টা চাপের কৌশল হিসেবেই দিলীপের নন্দীগ্রাম যাত্রা বলে মনে করা হচ্ছে। যদিও নন্দীগ্রামে বিজেপি এই কর্মসূচির জন্য প্রশাসনিক অনুমতি পায়নি। আজ বেলা ১১ টা নাগাদ নন্দীগ্রামের টেঙ্গুয়া মোড় থেকে জানকীনাথ মন্দির পর্যন্ত অভিনন্দন যাত্রা হওয়ার কথা। তাতে কমপক্ষে ৩০ হাজার দলীয় কর্মী-সমর্থক পা মেলাবেন বলে দাবি বিজেপির। দলীয় নেতৃত্বের অবশ্য দাবি, ই-মেল এবং চিঠির মাধ্যমে নন্দীগ্রাম থানা এবং হলদিয়া মহকুমা প্রশাসনিক দফতরে অনুমতি চেয়ে আবেদন করা হয়েছে। কিন্তু নন্দীগ্রাম থানা সূত্রের খবর, আবেদন সংক্রান্ত কোনও চিঠি বা ই-মেল তারা পায়নি। একই দাবি হলদিয়া মহাকুমা প্রশাসনেরও। হলদিয়ার মহকুমাশাসক এস আর মোহান্তি  বলেন, ‘‘বিজেপি নেতৃত্বের তরফে পদযাত্রা বা সভার জন্য অনুমতি চেয়ে কোনও চিঠি, ই-মেল আসেনি।’’

তবে পুলিশ সূত্রে খবর, বিজেপি রাজ্য সভাপতির কর্মসূচি নির্বিঘ্নে করতে পুলিশ-প্রশাসনের তরফে বাড়তি সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। বিজেপি সূত্রে খবর, নন্দীগ্রামে যাওয়ার পথে চণ্ডীপুর বাজারে দিলীপকে অভ্যর্থনা জানানো হবে। দলের তমলুক সাংগঠনিক জেলা সভাপতি নবারুণ নায়েক বলেন, ‘‘নন্দীগ্রাম ও পাঁশকুড়ায় রাজ্য সভাপতির কর্মসূচির জন্য আমরা প্রস্তুতি নিয়েছি। প্রশাসনকে জানিয়েই এই কর্মসূচি করা হচ্ছে।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন