• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সমুদ্র পুজো

1
চলছে প্রদীপ জ্বালিয়ে আরতি। মঙ্গলবার রাতে। নিজস্ব চিত্র

Advertisement

সমুদ্রে মাছ ধরতে গিয়ে হামেশাই ঘটছে দুর্ঘটনা। মোহনা সংলগ্ন চড়ায় আটকে ট্রলারডুবিও বাড়ছে। এই সমস্যার সঙ্গে জুড়েছে কম ইলিশের জোগান। তাই সমুদ্রকে তুষ্ট রাখতে তার পুজো করলেন মৎস্যজীবীরা। বুধবার রাতে দিঘা মোহনার কাছে শতাধিক প্রদীপ জ্বেলে সমুদ্র পুজোয় মেতে ওঠেন কয়েক হাজার মৎস্যজীবী।

মাছ ধরে যাঁদের জীবিকা নির্বাহ হয়, তাঁরা গঙ্গাপুজো করে থাকেন। গত ১৪ জানুয়ারি থেকে মকর সংক্রান্তি উপলক্ষে দিঘা মোহনায় শুরু হয়েছে গঙ্গোৎসব। আর সমুদ্রের দেবীও গঙ্গা। তাই দেবী গঙ্গাকে সন্তুষ্ট রাখার জন্য বুধবার গভীর রাতে এই পুজোর আয়োজন করেন স্থানীয় মৎস্যজীবী এবং ট্রলার মালিকদের সংগঠন। স্থানীয় মৎস্যজীবী সংগঠন সূত্রের খবর, গত বছর মোহনা সংলগ্ন খালের চড়ায় আটকে গিয়ে ডুবে গিয়েছে একাধিক ট্রলার। একাধিকবার বিপর্যয়ের মুখে পড়েছে বহু মৎস্যজীবী। তাই ক্ষতি এড়াতে তাঁরা সমুদ্র-পুজো করছেন। আর মৎস্যজীবীদের ওই সমুদ্র আরাধনা দেখার জন্য গভীর রাতেও ভিড় জমিয়েছিলেন বহু পর্যটক।

‘দিঘা ফিশারম্যান অ্যান্ড ফিশ ট্রেডার্স অ্যাসোসিয়েশন’-এর সম্পাদক শ্যামসুন্দর দাস বলেন, ‘‘শুধু এখানে নয়, গোটা বিশ্ব জুড়ে এ বছর মৎসজীবীদের খুব আর্থিক ক্ষতি হয়েছে। সমুদ্র দেবী যাতে মৎস্যজীবীদের প্রতি  সদয় হন, তাই আমরা জন্য প্রদীপ জ্বেলে আরতি এবং যজ্ঞ করছি।’’ সমুদ্র-পুজোর পাশাপাশিই দিঘা মোহনা সংলগ্ন খালে ড্রেজিং করার দাবি নিয়ে এদিন ফের সরব হয়েছেন সংগঠনের সভাপতি প্রণব কর। 

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন