হাতি আতঙ্ক এ বার ঘাটালে। সোমবার সকালে দলছুট দুই দাঁতাল ঘাটালের বিভিন্ন গ্রামে দাপিয়ে বেড়ায়। এক সময় ঘাটাল শহরের কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েছিল তারা। তবে বন দফতরের তৎপরতায় হাতি দু’টি ঘাটাল শহর এ ড়িয়ে হাওড়ার জয়পুরের দিকে চলে যায়।

বন দফতর জানিয়েছে, শনিবার রাতে আঁধারনয়নের জঙ্গল থেকে দলছুট দুই দাঁতাল চন্দ্রকোনার কালাকড়ি, জাড়া হয়ে সাটি তেঁতুল গ্রামে ঢুকে পড়ে। রবিবার দিনভর তারা সাটি তেঁতুল গ্রামেই ঘোরাফেরা করে।পাশাপাশি জঙ্গল না থাকায় আর জঙ্গলে ফিরতে পারেনি। রবিবার বুনো হাতির আতঙ্কে সরস্বতী পুজোর আনন্দ মাটি হয়ে যায়  মাঙরুলের সাটি তেঁতুল সহ ঘেঁষা গ্রামগুলিতে। নমো নমো করে পুজো সেরে স্কুল ছাড়েন শিক্ষক, পড়ুয়ারা।  ভয়ে সাটি তেঁতুল গ্রামের প্রাথমিক স্কুলে প্রসাদ বিতরণও হয়নি। রবিবার সন্ধে নামতেই হাতি দু’টিকে গ্রাম ছাড়া করতে লোকজন ঝাঁপিয়ে পড়েন। হুলা-পটকা ফাটিয়ে তাঁরা দলছুট দুই দাঁতালকে ঘাটালের দিকে পাঠিয়ে দেয়।  তারপর হাতি দু’টি ঘাটাল ব্লকের রাধানগর, আলুই, ডিঙাল-মনোহরপুর গ্রামগুলিতে দাপিয়ে বেড়ায়।  আলু-আনাজ নষ্ট করে তারা। সোমবার সকালের দিকে তারা ঘাটাল শহরের দিকে এগোতে থাকে। ছড়িয়ে পড়ে আতঙ্ক। পরিস্থিতি আঁচ করে বন দফতরের কর্মীরা কৌশলে তাদের দাসপুরের কুলটিকরি হয়ে রূপনারায়ণ পেরিয়ে জয়পুরের দিকে নিয়ে গিয়েছে।