লড়াইয়ে তারুণ্যেই বাম-আস্থা
দু’বছর পরে শুভেন্দুকে বিধানসভা ভোটে জিতিয়ে রাজ্য মন্ত্রিসভায় জায়গা দেওয়ার পর তমলুক লোকসভা কেন্দ্রে উপ-নির্বাচন হয়।
CPM

কাঁথিতে সিপিএম প্রার্থী পরিতোষ পট্টনায়েকের সমর্থনে দেওয়াল লিখন। —নিজস্ব চিত্র

গত লোকসভার নির্বাচনে তৃণমূল সাংসদ তথা প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে বামেদের তুরুপের তাস ছিল যুব সংগঠনের নেতা ইব্রাহিম আলি। কয়েক মাস আগে প্রাক্তন সাংসদ লক্ষ্মণ শেঠকে বহিষ্কারের পরে পঁচিশ বছরের যুবক ইব্রাহিমকে প্রার্থী করে কিছুটা চমক দিয়েছিলেন জেলা সিপিএম নেতৃত্ব। দুই যুব নেতার লড়াইয়ে শেষ পর্যন্ত ইব্রাহিমের পরাজয় হলেও সিপিএমের যুব দলে তাঁর গুরুত্ব বৃদ্ধি রাজনৈতিক মহলে চর্চার বিষয় হয়ে ওঠে।

দু’বছর পরে শুভেন্দুকে বিধানসভা ভোটে জিতিয়ে রাজ্য মন্ত্রিসভায় জায়গা দেওয়ার পর তমলুক লোকসভা কেন্দ্রে উপ-নির্বাচন হয়। সেখানে তৃণমূল প্রার্থী দিব্যেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে সিপিএম দাঁড় করিয়েছিল মহিলা নেত্রী মন্দিরা পন্ডাকে। তার আগে বিধানসভা ভোটে পূর্ব পাঁশকুড়া কেন্দ্র থেকে বিধায়ক হন ইব্রাহিম। লোকসভা উপ-নির্বাচনে হেরে যায় সিপিএম। এবার লোকসভা নির্বাচনে ফের তমলুক কেন্দ্রে তৃণমূল প্রার্থী দিব্যেন্দুর বিরুদ্ধে প্রার্থী হিসাবে ইব্রাহিমকেই তুলে আনলেন বাম নেতৃত্ব। কাঁথি লোকসভা কেন্দ্রেও প্রার্থী করা হয়েছে আর এক যুব নেতা পরিতোষ পট্টনায়েককে। পরিতোষ সিপিএমের যুব সংগঠন ডিওয়াইএফ-এর জেলা  সম্পাদক এবং সিপিএমের জেলা সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য। তাঁর বিরুদ্ধে প্রার্থী তৃণমূলের বর্ষীয়ান নেতা তথা দু’বারের সাংসদ শিশির অধিকারী।  তৃণমূল শক্তঘাটি পূর্ব মেদিনীপুরে দলের দুই যুব নেতাকে প্রার্থী করে সিপিএম নেতৃত্ব তরুণ প্রজন্মের ভোটারদের সমর্থন পাওয়ার চেষ্টার সঙ্গে সঙ্গে দলের পুরনো ও ছেড়ে যাওয়া কর্মী-সমর্থকদের কাছে টানতে উদ্যোগী হয়েছে বলে জেলার রাজনৈতিক মহলের অভিমত।

আদতে খেজুরির লাখি এলাকার বাসিন্দা পরিতোষের রাজনীতির শুরু হলদিয়া গভর্নমেন্ট কলেজে। সিপিএমের ছাত্র সংগঠন এসএফআই-এর হয়ে কলেজের ছাত্র সংসদের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। এরপর এসএফআইয়ের জেলা সম্পাদক হন। রসায়নে স্নাতকোত্তর পরিতোষ এখন ডিওয়াইএফের জেলা সম্পাদক। বছর ৩৪-এর পরিতোষ এ বারই প্রথম লোকসভার প্রার্থী হিসেবে লড়াই করবেন। পোড় খাওয়া নেতা শিশিরবাবুর বিরুদ্ধে লড়াইয়ের হাতিয়ার হিসাবে প্রচারে কোন কোন বিষয় তুলে ধরবেন? সিপিএম প্রার্থীর উত্তর, ‘‘বিরোধী নেতার বিরুদ্ধে লড়াই নয়। লড়াই নীতির সঙ্গে। বেকার যুবকদের কর্মসংস্থান, শিল্পায়ন, শিক্ষক নিয়োগে স্বচ্ছতা, কৃষক-খেত মজুরদের উন্নয়ন এবং দিঘা-সহ কাঁথির সার্বিক উন্নয়নের দাবিই প্রচারে তুলে ধরব।’’                        

২০১৪ লোকসভা নির্বাচনের ফল

  • সকলকে বলব ইভিএম পাহারা দিন। যাতে একটিও ইভিএম বদল না হয়।

  • author
    মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তৃণমূলনেত্রী

আপনার মত