আজ জেলায় জোড়া সভা মুখ্যমন্ত্রীর 
তৃণমূল সূত্রের খবর, রবিবার কাঁথি লোকসভায় তৃণমূলের প্রার্থী শিশির অধিকারীর সমর্থনে মমতার প্রথম জনসভাটি হবে কাঁথির হেঁড়িয়া বাজার সংলগ্ন ময়দানে।
Helipad

হেঁড়িয়ার সভাস্থলে শনিবার হেলিকপ্টার মহড়া। নিজস্ব চিত্র

কয়েক বছর ধরে তৃণমূলের শক্ত ঘাঁটি পূর্ব মেদিনীপুর। বিধানসভা বা পঞ্চায়েত— সবেতেই নিজেদের ‘আধিপত্য’ বজায় রেখেছে তারা। তবে লোকসভা ভোট-যুদ্ধের সমীকরণটা কিছুটা হলেও পাল্টেছে বলে মতামত রাজনৈতিক মহলের। কারণ, একদিকে, গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে জেলার বিভিন্ন অংশে বিজেপির শক্তি বৃদ্ধির আভাস মিলেছে। অন্যদিকে, প্রায় এক দশক পরে ফের ভোট ময়দানে নেমেছেনে একদা দোর্দণ্ডপ্রতাপ সিপিএমের প্রাক্তন সাংসদ লক্ষ্মণ শেঠ।     

এই পরিস্থিতিতে আজ, রবিবার জেলায় লোকসভা ভোটের জোড়া প্রচার সভায় আসছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃণমূল সূত্রের খবর, রবিবার কাঁথি লোকসভায় তৃণমূলের প্রার্থী শিশির অধিকারীর সমর্থনে মমতার প্রথম জনসভাটি হবে কাঁথির হেঁড়িয়া বাজার সংলগ্ন ময়দানে। দ্বিতীয় সভাটি হবে তমলুকের রাধামণি বাজারের কাছে কুমোরগঞ্জে, দিব্যেন্দু অধিকারীরর সমর্থনে। দুই জায়গাতেই মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল নেত্রীর সভার জন্য শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি চলছে জোরকদমে। উল্লেখ্য, কয়েক মাস আগেই পূর্ব মেদিনীপুরে প্রশাসনিক সফরে এসেছিলেন মমতা। বাজকুলে প্রশাসনিক সভা করে জেলায় একগুচ্ছ উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন এবং শিলান্যাস করেছিলেন। দিঘায় প্রশাসনিক বৈঠকও করেছিলেন।

পুলিশ এবং দলীয় সূত্রের খবর, খেজুরির হেঁড়িয়ায় জনসভাটি হওয়ার কথা দুপুর ১২টায়। তমলুকের কুমোরগঞ্জের সভাটি হবে দুপুর দেড়টা নাগাদ। দু’টি সভাতেই মুখ্যমন্ত্রী আসবেন হেলিকপ্টারে। সে জন্য দুই দুই সভাস্থলের কাছেই অস্থায়ী হেলিপ্যাড তৈরি করা হয়েছে। শনিবার সকালে কুমোরগঞ্জ এবং হেড়িয়ার হেলিপ্যাডে চলে উড়ানের মহড়া। দু’জায়গাতের সভামঞ্চের সামনে সমর্থকদের বসার জন্য মাথার উপর ছাউনি তৈরি  করা হয়েছে। থাকছে কড়া নিরাপত্তা। 

তৃণমূল সূত্রের খবর, কুমোরগঞ্জের সভায় তমলুক ও হলদিয়া মহকুমার বিভিন্ন ব্লক থেকে দলীয় সমর্থক এবং হেঁড়িয়ার সভায় কাঁথি ও এগরা মহকুমার বিভিন্ন ব্লকের সমর্থকেরা আসবেন। সে জন্য দলীয়ভাবে বাস, ট্রেকার-সহ বিভিন্ন গাড়ির ব্যবস্থা করা হয়েছে। দু’টি জনসভায় ৪০ হাজার করে  জমায়েতের লক্ষ্য নিয়েছে তৃণমূল। তমলুক লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী দিব্যেন্দু অধিকারী এ দিন বলেন, ‘‘দুটি সভায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং পরিবহণ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী থাকবেন। জনসভার জন্য দলীয়ভাবে প্রস্ততি সেরে নেওয়া হয়েছে।’’

এ দিন কমোরগঞ্জের সভাস্থলে গিয়ে দেখা গেল, মঞ্চসজ্জা-সহ সভাস্থলের বিভিন্ন প্রস্তুতির কাজ দেখাশোনা করছেন তমলুক ব্লকের তৃণমূল নেতা তথা পূর্ব মেদিনীপুর জেলা পরিষদের পূর্ত কর্মাধ্যক্ষ সোমনাথ বেরা, ময়নার বিধায়ক তথা জেলা তৃণমূল যুব কংগ্রেস সভাপতি সংগ্রাম দোলাই, তমলুক পুরসভার চেয়ারম্যান রবীন্দ্রনাথ সেন। সভাস্থলের কাছে পুলিশি নিরাপত্তার বিষয়টি খতিয়ে দেখছিলেন  তমলুকের এসডিপিও সব্যসাচী সেনগুপ্ত। 

জেলা পুলিশের এক পদস্থ আধিকারিক বলেন, ‘‘আগামিকালের সভা ঘিরে নিরাপত্তা ব্যবস্থা কঠোর করা হয়েছে।’’