• নিজস্ব সংবাদদাতা 
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

নেতা পাশে নেই, ক্ষোভ বিজেপিতে

BJP
প্রতীকী চিত্র।

বিধানসভা ভোট যত এগিয়ে আসছে ততই যেন প্রকট হচ্ছে বিজেপির অভ্যন্তরীণ কোন্দল। ততই যেন নেতৃত্বের প্রতি ক্ষোভ বাড়ছে কর্মীদের একাংশের। বুধবার দলীয় কার্যালয়ে সেটাই প্রকাশ পেল। 

এ দিন রাজ্য নেতৃত্বের উপস্থিতিতে জেলা নেতৃত্বের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিলেন একেবারে নিচু তলার কর্মীরা। তাঁদের মধ্যে যেমন কৃষ্ণনগর শহরের কর্মীরা ছিলেন তেমনই ছিলেন তেহট্ট এলাকার কর্মীরাও। তাঁদের অভিযোগ, দলের কর্মীদের পাশে দাঁড়াচ্ছেন না জেলা নেতারা। তাঁরা তৃণমূলের হাতে আক্রান্ত হলে হাসপাতালে পর্যন্ত দেখতে যাচ্ছেন না ওই নেতারা। যদিও এই ধরনের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন বিজেপির জেলা নেতৃত্ব।

নদিয়ায় বিজেপির অন্দরে কোন্দল দীর্ঘদিনের। নির্বাচন এগিয়ে এলেই তা বারবার প্রকাশ্যে চলে আসে। সম্প্রতি নদিয়া উত্তর সাংগঠনিক জেলার ৩৫ জন মণ্ডল সভাপতির মধ্যে ২৮ জনই বর্তমান জেলা সভাপতি আশুতোষ পালের বিরুদ্ধে লি‌খিত ভাবে রাজ্য ও নেতৃত্বের কাছে নানা অভিযোগ জানিয়েছিলেন। এ বার নিচুতলার কর্মীরাও সেই পথে হাঁটলেন। 

এ দিন জেলার মণ্ডল সভাপতিদের সঙ্গে দলের নানা কর্মসূচি বাস্তবায়িত করা ও অন্য সাংগঠনিক বিষয় নিয়ে বৈঠক করতে এসেছিলেন রাজ্যের সহ-সভাপতি বিশ্বপ্রিয় রায়চৌধুরী ও সহ-সভানেত্রী তথা এই সাংগঠনিক জেলার পর্যবেক্ষক মাফুজা খাতুন। জেলা কার্যালয়ে তাঁরা সাংবাদিক সম্মেলন শেষ করার কিছু ক্ষণ পরেই তেহট্ট ও কৃষ্ণনগরের কিছু কর্মী তাঁদের সঙ্গে দেখা করতে চান। কিন্তু তাঁদের ভিতরে ঢুকতে বাধা দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। ওই কর্মীরা চিৎকার চেঁচামেচি শুরু করে দেন। ধাক্কাধাক্কিও হয় বলে অভিযোগ। 

কৃষ্ণনগর ঘূর্ণী এলাকা থেকে আসা ওবিসি সেলের জেলা কমিটির প্রাক্তন সাধারণ সম্পাদক অলোক দেবনাথ, তেহট্টের বাসিন্দা বর্তমান শক্তিপ্রমুখ অভিজিৎ দেবনাথদের অভিযোগ, “কর্মীদের বিপদে পাশে দাঁড়াচ্ছেন না জেলা নেতারা। পুরনো নেতাকর্মীদের সাইড লাইনে ঠেলে দিয়ে, তাঁদের অন্ধকারে রেখে দল পরিচালনা করছেন মণ্ডল সভাপতিরা। তাঁরা তৃণমূলের কাছে বিক্রি হয়ে গিয়েছেন।” তাঁদের আক্ষেপ, “জেলা সভাপতিকে বারবার বলা সত্বেও কোনও লাভ হয়নি। উল্টে তিনি রাজ্য নেতৃত্বের কাছে এঁদেরই সুনাম করে এসেছেন!” তবে বিজেপির নদিয়া উত্তর সাংগঠনিক জেলা সভাপতি আশুতোষ পালের দাবি, “এমন কিছু ঘটনাই ঘটেনি। যাঁরা এ সব বলছেন, তাঁরা ঠিক কথা বলছেন না।”      

এ দিনই সাংবাদিক সম্মেলন করে বিজেপির দলের নদিয়া দক্ষিণ জেলা সভাপতি অশোক চক্রবর্তী ‘গণতন্ত্র বাঁচাও, বাংলা বাঁচাও’ কর্মসূচির কথা ঘোষণা করেছেন। দলের এই রাজ্য কর্মসূচি অনুসারে কাল, শুক্রবার বিভিন্ন মহকুমাশাসকের কার্যালয়ের সামনে সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত অবস্থান বিক্ষোভ করা হবে। 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন