• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

দেনা আর জ্বর, ফাঁসে মৃত যুবক

Death
প্রতীকী ছবি

গলায় ধুতির ফাঁসে এক যুবকের মৃত্যুর ঘটনায় করোনা আতঙ্কের প্রসঙ্গ উঠল। মৃতের নাম সুজিত বিশ্বাস (৩৫)। বাড়ি কোতায়ালি থানার দোগাছি বকুলতলা এলাকায়। বৃহস্পতিবার রাতে তাঁকে ঘরেই ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায়। পুলিশ দেটি ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে। যদিও জেলার স্বাস্থ্যকর্তাদের বক্তব্য, তাঁর জ্বর থাকলেও করোনার বাকি লক্ষণ কিছু ছিল না। তাই লালারস পরীক্ষা করা হবে না। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, সুজিত রানাঘাটে একটি দোকানে তিনি কাজ করছিলেন। মঙ্গলবার রাতেই অল্প জ্বর নিয়ে তিনি কৃষ্ণনগরের বাড়িতে ফেরেন। 

সেই বাড়িতে সুজিতের ভাই প্রদীপ ও তাঁর স্ত্রী বছর চারেকের ছেলেকে নিয়ে থাকেন। তাঁরা জানান, ফেরা ইস্তক সুজিত ঘরেই ছিলেন। বৃহস্পতিবার তাঁর জ্বর বাড়ায় পড়শিরা আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। খবর দেওয়া হয় আশাকর্মীদের। চিকিৎসক এসে পরীক্ষা করে জ্বরের ওষুধ দেন। ১৪ দিন অন্যদের সংশ্রব থেকে আলাদা থাকতেও বলে যান। প্রদীপ বলেন, “ব্যক্তিগত নানা কারণের পাশাপাশি দাদার অনেক দেনাও হয়ে গিয়েছিল। সব মিলিয়ে চাপে ছিল। তার উপরে করোনা আক্রান্তু হওয়ার ভয়ও তৈরি হয়েছিল। মনে হয়, এত চাপ নিতে না পেরেই ও আত্মহত্যা করে ফেলল।” কৃষ্ণনগর সদর মহকুমা স্বাস্থ্য আধিকারিক অরুণকুমার কোলে বলেন, “যত দূর জানতে পারছি, ওই যুবকের করোনা আক্রান্ত হওয়ার লক্ষণ ছিল না। তাই লালারস সংগ্রহ করার কোনও পরিকল্পনাও নেই।” 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন