নামহীন দেওয়াল লিখছে বিজেপি
কিছু জায়গায় আবার হাত-পা ঝাড়া দিয়ে দেওয়াল লিখনে নেমে পড়েছেন নিচুতলার কর্মীরা। 
Wall Writing

নেই নাম। রানাঘাটে। —নিজস্ব চিত্র

দলের প্রার্থী ঘোষণা হয়নি এখনও। মরিয়া হয়ে নাম ছাড়াই দেওয়াল লিখতে নেমেছে বিজেপি।

রানাঘাট লোকসভা কেন্দ্র এ বার জিততে মরিয়া বিজেপি। ইতিমধ্যে প্রার্থী ঘোষণা করে সেখানে প্রচারে নেমে পড়েছে তৃণমূল এবং বামেরা। বিজেপির প্রার্থী ঘোষণা তো হয়ইনি,  উল্টে বহিরাগত না স্থানীয় প্রার্থী দেওয়া হবে তা নিয়ে দলের মধ্যে বিতর্ক তৈরি হয়েছে। কিছুটা হলেও ঝিমিয়ে পড়েছেন বিজেপি কর্মীরা। কিছু জায়গায় আবার হাত-পা ঝাড়া দিয়ে দেওয়াল লিখনে নেমে পড়েছেন নিচুতলার কর্মীরা। 

মতুয়া ভোটকে সামনে রেখে রানাঘাট লোকসভায় তৃণমূলের সাথে টক্কর নিচ্ছে বিজেপি। রানাঘাটের এক বিজেপি কর্মী বলেন, “রোজই ভাবছি, আজই ঘোষণা হবে প্রার্থীর নাম। কোথায় কী! এ দিকে বাম আর তৃণমূল কবে থেকে প্রচার শুরু করে দিয়েছে। আমরা তো নামতেই পারলাম না।” কয়েক জায়গায় শুধু বুথ এবং মণ্ডল স্তরে কর্মী সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে। দেওয়াল দখল এবং লেখার কাজও কিছুটা এগিয়ে রেখেছেন তাঁরা। প্রার্থীর নাম বাদ রেখে শুধু দলীয় প্রতীক এঁকে ভোট দেওয়ার আবেদন জানানো হচ্ছে। 

বিজেপির প্রার্থী ঘোষণা নিয়ে দেরির কারণে একাধিক নাম জল্পনা করাও রোজকার কাজ হয়ে দাঁড়িয়েছে বিজেপি কর্মীদের। সোমবার রানাঘাটে দলের কার্যালয়ে একাধিক পদাধিকারী স্থানীয় প্রার্থী দাঁড় করানোর পক্ষে সওয়াল করেন। তাতে পরিস্থিতি আরও জটিল হয়েছে। জেলা বিজেপির এক নেতার কথায়, “এত দিনে প্রার্থী ঘোষণা হয়ে গেলে এত কথাও উঠত না। এখন দেখি, কী হয়।”

এই অবস্থায় কী ভাবে মনোবল অটুট থাকতে পারে বিজেপি কর্মীদের? দলের নদিয়া দক্ষিণ সাংগঠনিক জেলা সভাপতি জগন্নাথ সরকারের দাবি, “সাংগঠনিক ভাবে আমাদের দলে যাঁর যা দায়িত্ব, তিনি তা পালন করছেন। কর্মীরাও প্রচারের কাজেই আছেন।’’