তছরুপের অভিযোগ থেকে রেহাই পেতে বহরমপুর কৃষ্ণনাথ কলেজ স্কুলের (প্রাথমিক বিভাগ) পূর্বতন ভারপ্রাপ্ত শিক্ষিকা প্রধানশিক্ষকের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগ করেছেন। এমনই অভিযোগ তুলে ওই স্কুলের অভিভাবকদের একাংশ বুধবার সকালে ওই শিক্ষিকাকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখান। 

জেলা বিদ্যালয় পরিদর্শক পূরবী দে বিশ্বাস বলেন, ‘‘আর্থিক তছরুপ-সহ ওই শিক্ষিকার বিরুদ্ধে যাবতীয় অভিযোগের তদন্ত শুরু হয়েছে। সদর পূর্ব চক্রের অবর বিদ্যালয় পরিদর্শকের কাছ থেকে রিপোর্ট পাওয়ার পরে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করা হবে।’’ 

অবর বিদ্যালয় পরিদর্শক শুভাশিস দে বলেন, ‘‘ওই শিক্ষিকার বিরুদ্ধে ওঠা প্রায় ৪৩ হাজার টাকার তছরুপ ও প্রধানশিক্ষকের বিরুদ্ধে শ্লীলতহানির অভিযোগের তদন্ত শুরু হয়েছে।’’ ওই শিক্ষিকার অভিযোগ, ‘‘স্কুলে প্রধানশিক্ষক আমার শ্লীলতাহানি করেছেন।’’ 

সম্প্রতি সুদীপ্ত সিংহ স্কুলের প্রধানশিক্ষকের পদে যোগ দেন। কিছু দিন আগে ওই শিক্ষিকার বিরুদ্ধে তিনি ডিআইয়ের কাছে প্রায় ৪৩ হাজার টাকা তছরুপের অভিযোগ করেন। গত মঙ্গলবার তার শুনানি হয়। পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য হয়েছে আগামী ৭ অগস্ট। প্রধানশিক্ষকের দাবি, ‘‘দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে মিড-ডে মিল- সহ স্কুলের নানা রকমের তহবিল তছরুপের সঙ্গে যুক্ত আছে ওই স্কুলের মোট ৮-৯ জন শিক্ষক-শিক্ষিকার একটি চক্র। ভীমরুলের সেই চাকে ঠিল পড়তেই আমার বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির মিথ্যা অভিযোগ করা হয়েছে। একই ভাবে বছর খানেক আগের প্রধান শিক্ষকে বিরুদ্ধেও ওই শিক্ষিকা শ্লীলতাহানির মিথ্যা অভিযোগ করেছিলেন।’’