• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

মার্কস-লেনিনের ছবি নিয়ে মিছিল, হামলা এবিভিপির

ABVP
প্রতীকী ছবি

মার্কস-লেনিনের ছবি নিয়ে মিছিল করায় এসএফআই সমর্থকদের উপরে চড়াও হল এবিভিপি। বিদেশিদের ছবি নিয়ে কেন মিছিল করা হবে, এই প্রশ্ন তুলেই চালানো হয় হামলা। 

বুধবার দুপুরে মাজদিয়া সুধীরঞ্জন লাহিড়ী কলেজে এসএফআই এবং এবিভিপি-র মধ্যে এই গন্ডগোলের জেরে উত্তেজনা ছড়ায়। মারপিটে দু’জন আহত হন। তাঁদের কৃষ্ণগঞ্জ গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে প্রাথমিক চিকিৎসার পরে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। 

২০১১ সালের পর থেকে এই কলেজে এসএফআইয়ের তেমন অস্তিত্ব ছিল না। টিএমসিপি-র ছেলেরা তাদের মেরে কলেজ থেকে বের করে দিয়েছিল। কিন্তু লোকসভা ভোটে রানাঘাট কেন্দ্রে বিজেপির জয়ের পর পরিস্থিতি পাল্টে যায়। টিএমসিপি-র ছেলেদেরই মেরে কলেজ থেকে বের করে দেয় এবিভিপি। টিএমসিপি-র ছেলেরা কলেজে ঢুকতে গেলে একাধিক বার অশান্তিও হয়েছ। 

এই পরিস্থিতিতে এসএফআই আবার নতুন করে শক্তি সংগ্রহ করে কলেজে ঢোকার চেষ্টা করছে। বুধবার তারা ফি বৃদ্ধি, নাগরিকত্ব আইন ও নাগরিক পঞ্জির বিরোধিতায় মিছিল বের করেছিল। এবিভিপি তাতে বাধা দেয় বলে অভিযোগ। তখনই শুরু হয় অশান্তি। দু’পক্ষে মারপিট বেধে যায়। 

এসএফআইয়ের জেলা সম্পাদক মৌপ্রিয়া রাহার অভিযোগ, “আমাদের কমরেডরা শান্তিপূর্ণ ভাবে মিছিল করছিলেন। তখনই এবিভিপি-র কিছু গুন্ডা তাদের উপরে হামলা চালায়।” এবিভিপি-র জেলা প্রমুখ আশিস বিশ্বাস পাল্টা বলেন, “ওরা লেনিন আর কার্ল মার্কসের ছবি নিয়ে মিছিল করছিল। আমাদের ছেলেরা বাধা দেয়। কেন তারা অন্য দেশের লোকজনের ছবি নিয়ে মিছিল করবে? এর পরেও ওরা যদি লেনিন-মার্কসের ছবি নিয়ে মিছিল করে, আবার মার খাবে!” 

মাজদিয়া কলেজের ভারপ্রাপ্ত শিক্ষক সোমনাথ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করা হবে।” যদিও রাত পর্যন্ত পুলিশে কোনও অভিযোগ দায়ের হয়নি।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন