সভাপতি নির্বাচন হয়ে গিয়েছে। একের পর এক নেতা বক্তৃতা করছেন। হঠাৎই ভেঙে বসে গেল গোটা মঞ্চটা। তার আগেই বৃষ্টি নেমেছে। মঞ্চে থইথই করছে আবেগ। মঞ্চে হাজির রানাঘাটের সাংসদ তাপস মণ্ডল, রানাঘাট উত্তর পশ্চিমের বিধায়ক শঙ্কর সিংহ, রানাঘাট ১ পঞ্চায়েত সমিতির সদ্য নির্বাচিত সভাপতি তাপস ঘোষেরা। শনিবার দুপুর। হবিবপুরে ব্লক অফিসের সামনে সদ্যগঠিত পঞ্চায়েত সমিতির শপথ অনুষ্ঠান। সবে মাইকে ঘোষণা হয়েছে, ‘এ বার শঙ্কর সিংহ বক্তৃতা করবেন।’ হঠাৎই হুড়মুড় করে ভেঙে বসে গেল গোটা মঞ্চ। তুমুল হইচই। তড়িঘড়ি মঞ্চ ছেড়ে নেমে এলেন সকলে। 

এ বারের ভোটে ওই পঞ্চায়েত সমিতির ২৯টি আসনের মধ্যে তৃণমূল ২৩টি, বিজেপি তিনটি, কংগ্রেস দু’টি ও সিপিএম একটি আসন পেয়েছিল।   প্রত্যাশিত ভাবেই বোর্ড দখল করে তৃণমূল। ২০০৩ সাল থেকে টানা চার বার সভাপতি হলেন তাপস ঘোষ। 

কিন্তু মঞ্চ ভাঙল কেন? সভাপতি বলেন, “আবেগে অনেক লোক মঞ্চে উঠে পড়াতেই এই বিপর্যয়।” মঞ্চ তৈরির দায়িত্বে থাকা ডেকরেটর বীরেন পালও বলেন, ‘‘যেখানে ৩০-৩৫ জন ওঠার কথা, সেখানে দেড়শো লোক উঠলে তো মঞ্চ ভাঙবেই!’’