• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

লকডাউনের আগের দিন

ইদের আগে লকডাউন শুধু আজই

crowded
বহরমপুরের স্টেডিয়ামে মোটরযান বিভাগের সামনে ভিড়। নিজস্ব চিত্র

ইদুজ্জোহার আগে বুধবার ছাড়া আর লকডাউন হচ্ছে না। ফলে বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার ব্যবসায়ীরা ইদের বেচাকেনার সুযোগ পেলেন। জেলার ব্যবসায়ীরা জানান, যে ভাবে লকডাউন হচ্ছে তাতে ইদের আগে অন্ততপক্ষে দু’দিন বেচাকেনার সুযোগ পাওয়া মন্দের ভাল। এক ব্যবসায়ী জানান, সপ্তাহে দু’দিন করে লকডাউন ঘোষণা হয়েছিল, কিন্তু এই সপ্তাহে কেবল এক দিনই লকডাউন ঘোষণা হয়। তাতে তাঁরা ভেবেছিলেন বুধবার ছাড়া ইদের আগে আরও একদিন লকডাউন হতে পারে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত বুধবার ছাড়া এ সপ্তাহে লকডাউন নেই। ফলে ইদের আগে দু’দিন কিছুটা হলেও বেচাকেনার সুযোগ পাবেন তাঁরা। সূত্রের খবর, মঙ্গলবার বহরমপুরের বাজার সাপ্তাহিক বন্ধ রাখার দিন থাকলেও ইদ ও সাপ্তাহিক লকডাউনের কারণে এদিন অনেক ব্যবসায়ী দোকান খুলেছিলেন।

মুর্শিদাবাদ ডিস্ট্রিক্ট চেম্বার অব কমার্সের সম্পাদক স্বপন ভট্টাচার্য বলেন, ‘‘ইদের আগে লকডাউনের জেরে আমাদের ক্ষতি হচ্ছে। তবে গত সপ্তাহের মতো এ সপ্তাহে দু’দিন লকডাউন না হওয়ায় কিছুটা হলেও মন্দের ভাল। ইদুজ্জোহার আগে বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার ব্যবসা করার সুযোগ পাবেন।’’

তবে ভিন্ন মত পোষণ করেছেন বহরমপুর ক্লথ মার্চেন্টস ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের সম্পাদক বিষ্ণু দত্ত। তিনি বলেন, ‘‘টানা লকডাউনের সময়ে ইদ-উল-ফিতরের সময় দোকান বন্ধ থাকায় ব্যবসা করতে পারিনি। এ বারে আমরা ভেবেছিলাম ইদুজ্জোহাতে হয়তো ব্যবসা করার সুযোগ পাব। কিন্তু সাপ্তাহিক লকডাউনের জেরে সেই সুযোগও হাতছাড়া হল।’’ তাঁর দাবি, ‘‘বহরমপুরে মূলত বুধবার, শনিবার ও রবিবার ব্যবসা ভাল হয়। ইদের আগের সেই বুধবার এবং গত শনিবার বাজার বন্ধ থাকল। ফলে অনেক ক্ষতি হল।’’ কিন্তু করোনা ভাইরাস রুখতে লকডাউনের প্রয়োজনীয়তাও অস্বীকার করছেন না অনেক ব্যবসায়ীই।

সূত্রের খবর আজ বুধবার যে লকডাউন হবে, তা আগেই ঘোষণা করেছিল রাজ্য সরকার। মঙ্গলবার বিকেলে নবান্ন থেকে মু্খ্যমন্ত্রী ঘোষণা করেন, আগামী বুধবার ও রবিবার সকাল ৬টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত সম্পূর্ণ লকডাউন যেমন ছিল তেমনই থাকবে। এ ছাড়া অগস্ট মাসে সপ্তাহে দু’দিন করে লকডাউন ঘোষণা করেছে। 

জেলাশাসক জগদীশপ্রসাদ মিনা বলেন, ‘‘রাজ্য সরকারের ঘোষিত দিনগুলিতে সম্পূর্ণ লকডাউন কার্যকর করা হবে। লকডাউন অমান্য করলে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করা হবে।’’ মুর্শিদাবাদের পুলিশ সুপার কে শবরী রাজকুমার বলেন, ‘‘বিগত দিনগুলির মতো বুধবার সব ঘোষিত দিনগুলিতে সম্পূর্ণ লকডাউন করা হবে। আমরা বাসিন্দাদের বুঝিয়েছি।’’ তিনি বলেন, ‘‘এ ছাড়া অকারণে লকডাউন ভেঙে বেরলে আইনগত পদক্ষেপ করা হবে।’’  

মুর্শিদাবাদ জেলা বাস ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সম্পাদক শ্যামল সাহা বলেন, ‘‘টানা লকডাউনের সময় থেকে আমরা ক্ষতির মুখে পড়েছি। আনলকে গাড়ি চলাচল শুরু হওয়ায় ক্ষতির মধ্যেও আশা জেগেছিল। ফের সপ্তাহে দুদিন করে লকডাউন শুরু হওয়ায় বিরাট ক্ষতির মুখে পড়লাম। তবে সরকারি নির্দেশ মেনে আমরা চলব।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন