• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

জয়ের উল্লাস, নার্সিংহোমের সামনেই ফাটল শব্দ-বাজি

শিলিগুড়ি কমার্স কলেজে ছাত্র সংসদের ভোটে জয়ী হল টিএমসিপি। শনিবার ওই কলেজের ২৬ টি আসনের মধ্যে ২৫টিতে তারা জিতেছে। সেই আনন্দে কলেজে গেটের সামনে শব্দ বাজি ফাটিয়ে, বাজনা বাজিয়ে হুল্লোড় শুরু করে টিএমসিপি। কাছেই নার্সিংহোম রয়েছে। তা ছাড়া কলেজ লাগোয়া এলাকায় প্রচুর বাড়ি রয়েছে। জোরাল শব্দবাজি ফাটানোয় বিপাকে পড়েন রোগী এবং বাসিন্দাদের অনেকেই।

গণনা শেষ না হতেই দফায় দফায় জোরাল শব্দবাজি ফাটানো এবং ব্যান্ডপার্টি বাজানো চলতে থাকে। হুল্লোড়ে গণনার কাজে সমস্যা হতে পারে দেখে কলেজ কর্তৃপক্ষও তাদের অন্যত্র সরে যেতে বলেন। তবে তাতে কান না দিয়ে বাজি ফাটানো চলেছে। পরে বিজয় মিছিল হয়। তৃণমূলের জেলাসভাপতি নির্ণয় রায় বলেন, “শিলিগুড়ি কমার্স কলেজে ২৫টি আসনে আমরা জেতেছি। জয়ের আনন্দে পড়ুয়ারা সামান্য হইচই করেছে। তাতে সমস্যা হওয়ার কথা নয়।”

টিএমসিপি-র বিক্ষুব্ধ সদস্যরাই বেশ কিছু আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছে। ২৬ টি আসনের মধ্যে ৭টি বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জেতে তারা। এ দিন ১৯টি আসনের মধ্যে নির্বাচন হয়। তার মধ্যে ৯ টি আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয় টিএমসিপি-র বিক্ষুব্ধদের সঙ্গেই। ছাত্র পরিষদ ১০টি আসনে প্রার্থী দিলেও একটিতেও জিততে পারেনি। ১৮টিতে জেতে টিএমসিপি। যে আসনটি হাত ছাড়া হয়েছে সেটি তাদেরই বিক্ষুব্ধ এক ছাত্র নেতা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে জিতেছেন। দ্বিতীয় শিক্ষাবর্ষে একটি আসনে ওই ছাত্রনেতা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন। তৃণমূল ছাত্র পরিষদের জেলা সভাপতি নির্ণয় রায় বলেন, “কিছু বিক্ষুব্ধ রয়েছে। তবে তাদের নিয়ে আমরা চিন্তিত নই।”

এ দিন ভোটে কলেজের গেটের কাছে পুলিশি ব্যারিকেডের ভিতরে ঘোরা ফেরা করতে দেখা গিয়েছে তৃণমূল ছাত্র পরিষদের জেলাসভাপতি নির্ণয় রায়, দলের অপর যুব নেতা সঞ্জয় পাল, মিঠুন বৈশ্যের মতো বহিরাগতদের। বিরোধী দলের ছাত্রনেতাদের কমই দেখা গিয়েছে। ছাত্র পরিষদের শিলিগুড়ি টাউন সভাপতি শাহনাবাজ হুসেন জানান, হুমকি, ভয় দেখানোয় পড়উয়াদের অনেকেই এ দিন ভোট দিতে আসতে পারেনি। উল্লেখ্য, দীর্ঘদিন ধরেই ওই কলেজের ছাত্র সংগঠন ছাত্র পরিষদের দখলে ছিল। গত বছর ছাত্র পরিষদ জয়ী হলেও নির্বাচনের পর ছাত্র পরিষদের জয়ী প্রার্থীদের একটা বড় অংশ টিএমসিপি’তে যোগ দেওয়ায় ছাত্র সংসদ তারা দখলে নেয়।

গাড়ির ধাক্কায় মৃত্যু বালকের। ছোটগাড়ির ধাক্কায় মৃত্যু হল চতুর্থ শ্রেণির এক ছাত্রের। শুক্রবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে রায়গঞ্জ থানার ঘুঘুডাঙা মোড় এলাকার ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কে। পুলিশ জানায়, মৃত আনসারুল হক (১০)। ওই এলাকারই বাসিন্দা। স্থানীয় বালিয়াপুকুর প্রাথমিক স্কুলের ছাত্র আনসারুল ওই দিন সকালে একটি নিমন্ত্রণ বাড়িতে গিয়েছিল।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন