সব বাম দলগুলিকে এক ছাতার তলায় এনে শক্তি জাহিরের চেষ্টা শুরু হয়েছে রাজ্য জুড়েই। সাম্প্রদায়িকতা এবং সন্ত্রাসের প্রতিবাদে সোমবার ৬টি বামদল একসঙ্গে মিছিল করল শিলিগুড়িতে। বামফ্রন্টের শরিক ৪টি দলের সঙ্গে এসইউসি এবং সিপিআইএমএলও পতাকা, ব্যানার নিয়ে মিছিল হেঁটেছে। বামেদের দাবি, মিছিলে অন্তত ১০ হাজার লোক হয়েছিল। এ দিন শিলিগুড়ির বাঘাযতীন পার্ক থেকে মহানন্দা সেতু লাগোয়া পানিট্যাঙ্কি ট্র্যাফিক পুলিশ আউট পোস্ট পর্যন্ত মিছিল হয়েছে। বিকেলের ব্যস্ত সময়ে মিছিলের জেরে হিলকার্ট রোড জুড়ে এ দিন যানজট হয়ে যায়। যানজট ছড়িয়ে পড়ে সেবক রোডেও। ঘণ্টাখানেক যানজটে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে শিলিগুড়ির এই দুই মূল রাস্তা।

বামেদের তরফে জানানো হয়েছে, কেন্দ্রে বিজেপি সরকারের সাম্প্রদায়িকতা এবং রাজ্যে তৃণমূলের সন্ত্রাসের প্রতিবাদে মিছিল হয়েছে। এ দিনের মিছিলের ভিড় কর্মী সমর্থকদের মনোবল বাড়িয়েছে বলে দাবি করে প্রাক্তন পুরমন্ত্রী অশোক ভট্টাচার্য অভিযোগ করে বলেন, “বিজেপি-তৃণমূল দু’দলই সাম্প্রদায়িক নীতি নিয়ে চলছে। রাজ্য জুড়ে সন্ত্রাস চালাচ্ছে তৃণমূল। একশো দিনের কাজ সহ অনান্য প্রকল্পকে পঙ্গু করে দিচ্ছে কেন্দ্রের বিজেপি সরকার, অন্যদিকে সারাদা কাণ্ডে জড়িয়ে পড়েছেন তৃণমূল নেতারা। সবমিলিয়ে সঙ্কট ঘনীভূত হয়েছে। তার প্রতিবাদেই মিছিল হয়েছে।”

বাম মনোভাবাপন্ন সব দলগুলিকে একত্রিত করে মাসখানেকের প্রস্তুতির পরে এ দিনের ‘মহামিছিলের’ ডাক দেওয়া হয়েছিল। তবে বামেদেরই একাংশের দাবি, ৬টি বাম দলের মহামিছিলে যতটা ভিড় আশা করা হয়েছিল, এ দিনের মিছিলে ততটা ভিড় দেখা যায়নি।