প্লাস্টিক ও গুটখা রুখতে কড়া নির্দেশ জারি জিটিএ-র - Anandabazar
  • নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

প্লাস্টিক ও গুটখা রুখতে কড়া নির্দেশ জারি জিটিএ-র

Advertisement

প্লাস্টিকের ক্যারিব্যাগ এবং গুটখা নিষিদ্ধ করতে আটঘাট বেঁধে প্রচারে নামতে চাইছে জিটিএ কর্তৃপক্ষ। জিটিএ এলাকাভুক্ত প্রতিটি পুরসভাকে এই নিয়ে ‘কড়া নির্দেশ’ জারি করার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার থেকেই জিটিএ এলাকায় প্লাস্টিকের ক্যারিব্যাগ এবং গুটখার ব্যবহার নিষিদ্ধ বলে ঘোষণা করেছিল জিটিএ কর্তৃপক্ষ। তবে সেই নিষেধাজ্ঞা আরও দু’সপ্তাহ পর থেকে কার্যকরী হবে বলে জানানো হয়েছে। জিটিএ সূত্রের খবর, নিষেধাজ্ঞা জারির পরে নির্দেশে যাতে কোনও আইনি ফাঁক না থাকে, তার জন্য সব ধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। আইন অনুযায়ী কোনও পুরসভা কর্তৃপক্ষ এলাকায় প্লাস্টিকের ক্যারিব্যাগ এবং গুটখা নিষিদ্ধ করতে পারে। জিটিএ-এর সুপারিশ মেনে পাহাড়ের তিনটি পুরসভা আগামী মাসের মাঝামাঝি নির্দেশ জারি করে নিষেধাজ্ঞা জারি করতে চলেছে বলে জানানো হয় এ দিন।

অন্য দিকে, এ দিন থেকেই দার্জিলিঙে ‘স্বচ্ছ ভারত অভিযান’ চালু করেছে জিটিএ। ভগিনী নিবেদিতার জন্মদিন উপলক্ষে মঙ্গলবারই ওই প্রকল্পের সূচনা করার দিন বেছে নিয়েছিল জিটিএ। সকালে চৌরাস্তায় ঝাড়ু দিয়ে দার্জিলিঙে প্রকল্পের উদ্বোধন করেন জিটিএ চিফ বিমল গুরুঙ্গ এবং দার্জিলিঙের বিজেপি সাংসদ সুরিন্দ্র সিংহ অহলুওয়ালিয়া। এ দিন থেকেই পাহাড়ের বিভিন্ন জনপদে এই প্রকল্পের সূচনা হয়েছে। প্রতিটি পুর-কর্তৃপক্ষ ছাড়াও, স্কুল এবং কলেজ কর্তৃপক্ষকেও অভিযানে সামিল হওয়ার আর্জি জানিয়েছে জিটিএ। সপ্তাহে ২-৩ জন করে জিটিএ-র সব সদস্য এবং আধিকারিকদেরও অভিযানে সামিল হওয়ার অনুরোধ করা হয়েছে।

জিটিএ চিফ বিমল গুরুঙ্গের কথায়, “শুধু রাস্তা বা অফিস পরিচ্ছন্ন করলেই হবে না, আমাদের মন থেকেও জঞ্জাল পরিষ্কার করতে হবে। পরিবেশ বলতে একটি বৃহত্‌ পরিসরকে বোঝায়। সে কারণেই প্লাস্টিকের ক্যারিব্যাগ এবং গুটখায় নিষেধাজ্ঞার সিদ্ধান্ত হয়েছে।” দার্জিলিঙের যে ওয়ার্ড সর্বাধিক পরিচ্ছন্ন হবে, সেই ওয়ার্ডকে আগামী সপ্তাহে পুরস্কৃত করা হবে বলেও এ দিন ঘোষণা করেন গুরুঙ্গ।

জিটিএ সূত্রের খবর, গুরুঙ্গের নির্দেশেই জিটিএ-র সদস্যরা বৈঠকে বসে প্লাস্টিকের ক্যারিব্যাগের ব্যবহার এবং গুটখার কেনা-বেচায় নিষেধাজ্ঞা জারির সিদ্ধান্ত নেন। এ দিন প্রকল্পের সূচনা অনুষ্ঠানেও গুরুঙ্গের মুখে একাধিকবার সেই নিষেধাজ্ঞা নিয়ে সচেতন করতে শোনা গিয়েছে। গুরুঙ্গ বলেন, “নিষেধাজ্ঞা জারির ক্ষেত্রে পুর আইন মেনেই পদক্ষেপ করা হবে। পাহাড়ের পুরসভাগুলি দ্রুত নির্দেশ জারি করবে।

নির্দেশ অমান্য করলে কত টাকা জরিমানা হবে তাও সংশ্লিষ্ট পুর কর্তৃপক্ষ স্থির করবে।” এ দিনের অনুষ্ঠানে দার্জিলিংকে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখার শপথবাক্যও পাঠ করা হয়। জিটিএ-র আধিকারিক, বিধায়ক থেকে শুরু করে বিভিন্ন স্কুলের পড়ুয়ারা ও শিক্ষকেরাও শপথ নিয়েছেন।

মঙ্গলবার ভগিনী নিবেদিতার জন্মদিন উপলক্ষে  দার্জিলিং চৌরাস্তায় ঝাড় দিয়ে ‘স্বচ্ছ ভারত অভিযান’ প্রকল্পের সূচনা করেন সাংসদ সুরেন্দ্র সিংহ অহলুওয়ালিয়া ও জিটিএ চিফ বিমল গুরুঙ্গ। ছবি: রবিন রাই।

 

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন
বাছাই খবর

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন