• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

অভাবের সুযোগেই অল্প টাকার বিনিময়ে শিশুশ্রম

Representative Image
প্রতীকী ছবি।

সামান্য কিছু টাকা৷ আর তাতেই শৈশবকে বদলে দেওয়া হচ্ছে শিশু শ্রমে৷ অভাবের সুযোগ নিয়ে রেলের এক শ্রেণির কর্মী দিনের পর দিন অবৈধ ভাবে শিশুদের রেলের বিভিন্ন কাজে লাগাচ্ছে বলে অভিযোগ৷ এর পরিণতি হিসাবেই গত শুক্রবার নিউ আলিপুরদুয়ার রেল স্টেশনে ১৪ বছরের কিশোরকে রাজধানী এক্সপ্রেসের ধাক্কায় প্রাণ দিতে হয়েছে বলে অভিযোগ৷ আর তার পর থেকেই বিষয়টি নিয়ে সরব বিভিন্ন মহল৷ যদিও এখনও অভিযোগ মানতে নারাজ আলিপুরদুয়ারের রেল কর্তারা৷

গত শুক্রবার নিউ আলিপুরদুয়ার রেল স্টেশনে ওই কিশোরের মৃত্যুর পরে অভিযোগ ওঠে, রেলেরই এক গ্যাংম্যান সামান্য টাকার বিনিময়ে একটি স্কুলের অষ্টম শ্রেণির ছাত্র ওই কিশোরকে নিজের কাজে লাগান৷ রেললাইনের নীচে থাকা কংক্রিটের পিলারে রং করার সময়ে ডাউন রাজধানী এক্সপ্রেসের ধাক্কায় তার দেহ ছিন্নভিন্ন হয়ে যায়৷ শুক্রবার ঘটনার পরে বিষয়টি নিয়ে সরব হয় রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল৷ শনিবার তৃণমূলের পাশাপাশি বিজেপি নেতারাও বিষয়টি নিয়ে সরব হয়েছেন৷

স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, এলাকায় অনেক ছেলে রয়েছে, অভাবের সংসারে যারা বড় হচ্ছে৷ মূলত, সেই ছেলেদেরই ‘টার্গেট’ করে কাজে লাগাচ্ছেন রেলের একশ্রেণির কর্মী৷

তৃণমূল নেতা তথা আলিপুরদুয়ার ২নম্বর পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি অনুপ দাসের অভিযোগ, ‘‘রেলের একশ্রেণির কর্মী, বিশেষত গ্যাংম্যান, সাফাই কর্মীদের একাংশ স্থানীয় কিছু লোকের অভাবের সুযোগ নিয়ে নিয়মিত তাঁদের ছোট-ছোট ছেলেদের সামান্য টাকার বিনিময়ে ভাড়া নিয়ে নিজেদের কাজ করিয়ে নেন৷ রেল কর্তাদের চোখের সামনে দিনের পর দিন এই ঘটনা ঘটে চললেও তারা নীরব৷ এ জন্যই শুক্রবার ওই কিশোরকে প্রাণ হারাতে হয়েছে৷ রেল কর্তারা চুপ করে থাকলেও আমরা থাকব না৷ আমরা যেনতেন প্রকারে এ ধরনের ঘটনা রুখব৷’’

শনিবার আলিপুরদুয়ারে বিজেপির জেলা সাধারণ সম্পদক জয়ন্ত রায়ের অভিযোগ, ‘‘দেশের প্রধানমন্ত্রী যেখানে বারবার করে কর্মসংস্কৃতি ফেরানোর কথা বলে চলেছেন, সেখানে রেলের একশ্রেণির কর্মী নিজেরা কাজ না করে সামান্য টাকার বিনিময়ে শিশুশ্রমিকদের রেলের কাজে লাগাবেন, তা মানা যায় না৷ আমরা এই ঘটনার যাবতীয় তথ্য সংগ্রহ করছি৷ দ্রুত তা রেলমন্ত্রীর কাছে পাঠানো হবে৷’’

শনিবার গোটা ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন উত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেলের আলিপুরদুয়ারের কর্তারা৷ তবে এ দিনও শিশুশ্রমিকদের দিয়ে কাজ করানোর অভিযোগের সত্যতা তাঁরা স্বীকার করেননি৷ রেলের এক কর্তা বলেন, ‘‘রেলের কোনও কর্মী কোনও কিশোরকে দিয়ে নিজের কাজ করাচ্ছেন, এমন অভিযোগ আগে কেউ করেনি৷’’ 

আলিপুরদুয়ারের ডিআরএম চন্দ্রবীর রমন জানান, বিষয়টি নিয়ে রেলের আধিকারিকদের খোঁজ নিতে বলেছি৷ তবে এমন েঘটনার কথা তাদের কেউ এখনও আমায় জানাননি৷

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন