• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

জমিবিবাদে খুন, ধৃত ১

Murder
এই পিস্তলই মিলেছে তল্লাশিতে। —নিজস্ব চিত্র

Advertisement

ফের খুনের ঘটনা ঘটল আলিপুরদুয়ার শহরে। এ বার শরিকি জমি বিবাদকে কেন্দ্র করে খুড়তুতো দাদার হাতে ভাই খুন হয়েছেন, বলে অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার রাতে, শহরের উত্তর অরবিন্দ নগর এলাকায় দাদার লাইসেন্স পিস্তল থেকে ছোড়া গুলিতে ভাই খুন হন। পুলিশ সূত্রে এমনটাই জানা গিয়েছে। মৃত যুবকের নাম বাপি পণ্ডিত (২৩)। বাপির অভিযুক্ত ওই খুড়তুতো দাদার নাম বিপ্লব বসাক।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, দুই পরিবারের মধ্যে জমি নিয়ে শরিকি বিবাদ চলছিল দীর্ঘদিন ধরে। এই নিয়ে বসাক পরিবার ও পন্ডিত পরিবারের বিরুদ্ধে আদালতে মামলাও হয়। ঘটনার দিন, রাতে বাপি এক বন্ধুকে সঙ্গে নিয়ে বিপ্লবের সঙ্গে কথা বলতে যান। বিপ্লবের বাবা বাদল বসাক জানান, ওই দিন রাতে বাড়িতে এসে বিপ্লবকে ডাকে বাপি। তারপর বিপ্লবকে সামনে পেয়ে গালিগালাজ করে বাপি মারধর শুরু করে বলে তাঁর অভিযোগ। তিনি জানান, হঠাৎই গুলির শব্দ শুনতে পান। কী ভাবে কী হয়ে গেল, কিছুই বুঝে উঠতে পারছেন না বলে তিনি জানিয়েছেন।

বাপি গুলিবিদ্ধ হওয়ার পর স্থানীয়রা তাঁকে রক্তাক্ত অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। এই ঘটনার পরই অভিযুক্ত এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যান বলে জানা গিয়েছে। অবশ্য পুলিশের দাবি, অভিযুক্ত বিপ্লব বসাক ঘটনার পর পুলিশকে ফোন করে গুলি চালানোর কথা স্বীকার করে নেন। পুলিশ জানিয়েছে, বিপ্লব দাবি করে আত্মরক্ষার জন্যই সে গুলি চালাতে বাধ্য হয়। যদিও পুলিশ সেই দাবি এখনই মানতে নারাজ। পুলিশ জানিয়েছে, এ ক্ষেত্রে অভিযুক্ত আত্মসমর্পণ করে থাকে। কিন্তু তা না করে পালিয়ে গিয়েছেন বিপ্লব।

নিহত বাপির বাবা বিপ্রদাস পণ্ডিত বলেন, ‘‘আমার ছেলেকে ডেকে নিয়ে গিয়ে ঠান্ডা মাথায় খুন করেছে বিপ্লব এবং তাঁর বাবা বাদল বসাক। দু’জনের ফাঁসি চাই।’’

আলিপুরদুয়ার থানার পুলিশ গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। বিপ্লবের জামাইবাবু অনুজ মল্লিককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ ছাড়া বাপির সঙ্গে থাকা এক যুবককে পুলিশ থানায় ডেকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে। অভিযুক্ত বিপ্লবের খোঁজে তল্লাশি চলছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বিপ্লবের আলিপুরদুয়ার চৌপথিতে একটি চশমার দোকান রয়েছে। এ ছাড়া অসমের গুয়াহাটিতেও তাঁর ব্যবসা আছে।

আলিপুরদুয়ারের পুলিশ সুপার নগেন্দ্রনাথ ত্রিপাঠি বলেন, ‘‘অভিযুক্ত যুবক বিজেপি নেতা ছিলেন। জমি বিবাদকে কেন্দ্র করে এই খুনের ঘটনা ঘটেছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করা হয়েছে। অভিযুক্তের খোঁজে তল্লাশি চলছে।’’

আলিপুরদুয়ারের তৃণমূল বিধায়ক সৌরভ চক্রবর্তী বলেন, ‘‘খুনে অভিযুক্ত বিপ্লব বসাক বিজেপির সক্রিয় কর্মী ছিলেন। গত লোকসভা ভোটে তাঁকে বিজেপি প্রার্থীর সঙ্গে প্রচার করতেও দেখা গিয়েছে। অভিযুক্তের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।’’ বিজেপির আলিপুরদুয়ার জেলা সভাপতি গঙ্গাপ্রসাদ শর্মা বলেন, ‘‘অভিযুক্ত যুবক বিজেপি দলের কোনও নেতা বা কর্মী, কেউ নন।’’ এসপি অভিযুক্তকে বিজেপির কর্মী বলে দাবি করার পরিপ্রেক্ষিতে বিজেপির জেলা সভাপতি বলেন, ‘‘অভিযুক্ত যে বিজেপি নেতা সেটা এসপিকেই প্রমাণ দিতে হবে।’’ সিপিএমের অনিন্দ্য ভৌমিক বলেন, ‘‘অভিযুক্ত যে দলেরই হোক দোষীর শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।’’

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন