• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বিরিয়ানি খেতে ডেকে কুপিয়ে খুন বন্ধুকে

Murder
প্রতীকী ছবি।

বিরিয়ানি খাওয়ানোর নাম করে বন্ধুকে ডেকে নিয়ে গিয়ে কুপিয়ে খুনের অভিযোগ উঠল প্রতিবেশী এক যুবকের বিরুদ্ধে। মালদহের কালিয়াচক থানার ডাঙা গ্রামে। সোমবার সকালে ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কের পাশ থেকে ওই যুবকের রক্তাক্ত মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। তা ময়নাতদন্তে মালদহ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠানো হয়। অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, নিহতের নাম সায়েম মোমিন (২০)। তিনি কালিয়াচকের এক প্যাথলজি ল্যাবের কর্মী ছিলেন। তাঁকে খুনের অভিযোগে প্রতিবেশী আমির শেখকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বিবাহবর্হিভূত সম্পর্কের জেরেই খুন বলে প্রাথমিক তদন্তে অনুমান। মালদহের পুলিশ সুপার অলোক রাজোরিয়া বলেন, ‘‘পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে আর কেউ যুক্ত রয়েছে কিনা তা দেখা হচ্ছে।’’ পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে খবর, কালিয়াচক থানার জালালপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের বড়নগর ডাঙা গ্রামের বাসিন্দা সায়েম। রবিবার রাতে তাঁদের বাড়িতে চড়ুইভাতি চলছিল। অভিযোগ, সেই সময় সায়েমকে বিরিয়ানি খাওয়ানোর নাম করে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায় প্রতিবেশী আমির। পরিবারের লোকেরা জানান, তার পর থেকে আর বাড়ি ফেরেননি সায়েম। গ্রামে খোঁজ করেও তাঁর হদিস মেলেনি।

পুলিশ জানায়, এ দিন সকালে বাড়ি থেকে ৫০০ মিটার দূরে ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কের ধারে সায়েমের রক্তাক্ত মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয় বাসিন্দারা। পুলিশ দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠায়। পুলিশ জানিয়েছে, মৃতদেহের পাশেই এক জোড়া জুতো পড়ে ছিল। সেখানেই তাঁকে বসিয়ে ধারাল অস্ত্রে কুপিয়ে খুন করা হতে পারে বলে তদন্তে অনুমান। নিহতের গলা ও শরীরে একাধিক আঘাত রয়েছে। এ দিনই সকালে এ নিয়ে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন নিহতের বাবা বারেক মোমিন। তিনি বলেন, ‘‘বাড়িতে পরিবারের সকলে মিলে চড়ুইভাতি চলছিল। আমির ছেলেকে বিরিয়ানি খাওয়ানোর নাম করে ডেকে নিয়ে যায়। আমিরই আমার ছেলেকে খুন করেছে।’’ 

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, সায়েমের সঙ্গে আমিরের বন্ধুত্ব ছিল। সায়েমের সঙ্গে আমিরের স্ত্রীরও বন্ধুত্বের সম্পর্ক ছিল। আর তা নিয়ে সন্দেহ করত আমির। বিবাহবর্হিভূত সম্পর্কের জেরেই খুন বলে প্রাথমিক তদন্তে অনুমান। মঙ্গলবার ধৃতকে মালদহ জেলা আদালতে পেশ করা হবে বলে জানান পুলিশকর্তারা।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন