হাসপাতালে আসা রোগীর আত্মীয়দের মারধরের অভিযোগ উঠল পুলিশের বিরুদ্ধে।

বৃহস্পতিবার রাতে দার্জিলিং সদর হাসপাতালের মহিলা ওয়ার্ডের সামনে থাকা দু’জনকে বেধড়ক মারধর করা হয়েছে বলে অভিযোগ। প্রহৃতদের অভিযোগ, অভিযুক্ত পুলিশকর্মীরা নেশাগ্রস্ত ছিলেন। বিনা কারণে, কোনও প্রশ্ন না করে হঠাৎই মারধর শুরু করে বলে অভিযোগ। দার্জিলিং থানায় এ দিন অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে রোগীর পরিবারের তরফে। পুলিশের দাবি, তদন্ত শুরু হয়েছে। রাতের বেলায় রোগীর পরিবারের সঙ্গে পুলিশকর্মীদের কোনও কারণে বচসা বেধেছিল বলে পুলিশের দাবি। দার্জিলিঙের জেলা সুপার অমিত জাভালগি বলেন, ‘‘তদন্ত হচ্ছে। পুলিশ কর্মীদের গাফিলতি প্রমাণ হলে কড়া পদক্ষেপ হবে।’’

বৃহস্পতিবার রাতে ৬৫ বছরের জয়ন্তী সুব্বাকে হাসপাতালে নিয়ে আসেন তাঁর পরিবারের সদস্যরা। পেটের রোগের সংক্রমণের কারণে হাসপাতাল থেকে তাঁকে শিলিগুড়িতে রেফার করে দেওয়া হয়। জয়ন্তী দেবীর আত্মীয় বিবেক দেওয়ানের অভিযোগ, রাতের বেলায় শিলিগুড়িতে যাওয়া নিয়ে আলোচনা করছিলেন। মহিলা ওয়ার্ডের সামনের করিডরে তাঁরা দাঁড়িয়ে ছেলেন। সে সময়ই তাঁদের ওপর মারধর শুরু হয়।