স্কুলবাসের মধ্যে প্রথম শ্রেণির এক ছাত্রীকে যৌননিগ্রহের অভিযোগ উঠল কন্ডাক্টরের বিরুদ্ধে। শনিবার বিকেলের ঘটনা। রাতে রায়গঞ্জ থানায় ছাত্রীর পরিবার অভিযোগ জানায়। ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য তাকে রায়গঞ্জ সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে।

রবিবার বলরাম রায় নামে ওই কন্ডাক্টরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তার বাড়ি রায়গঞ্জের রূপাহারে। তার বিরুদ্ধে পকসো আইনে মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। পুলিশ সুপার সুমিত কুমারের দাবি, ‘‘সোমবার অভিযুক্তকে জেলা ও দায়রা আদালতে তোলা হবে।’’ স্কুলের অধ্যক্ষা সুজাতা দত্ত বলেন, ‘‘ছাত্রীর পরিবারের তরফে কিছু জানানো হয়নি। বিষয়টি শুনেছি। পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করে খোঁজ নেওয়া হচ্ছে।’’ পুলিশ এবং পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, সাত বছরের শিশুটি রায়গঞ্জের গোবিন্দপুর এলাকার একটি বেসরকারি ইংরেজি মাধ্যম স্কুলে পড়ে। শনিবার দুপুর পৌনে ২টো নাগাদ স্কুল ছুটি হয়। বাসে নার্সারি থেকে দ্বিতীয় শ্রেণি পর্যন্ত ৩২ জন পড়ুয়া ছিল। সবাইকে নামিয়ে ওই ছাত্রীকে নামানোর জন্য বাসটি নির্দিষ্ট জায়গায় দাঁড়িয়েছিল। চালক বাস থেকে নেমে নীচে দাঁড়িয়েছিলেন। তার মাও তখন পৌঁছননি। অভিযোগ, সেই সুযোগে বলরাম ফাঁকা বাসে ছাত্রীকে যৌননিগ্রহ করে। ছাত্রীর মা জানান, মেয়ের ভবিষ্যতের স্বার্থে তিনি এ নিয়ে কিছু বলতে চান না।