• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বাস ধর্মঘটে না উত্তরের বহু মালিকের, জানালেন মন্ত্রী

Goutam Deb
পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেব।

কলকাতায় বাস মালিকদের একটি সংগঠনের ডাকা ধর্মঘটে সামিল হবে না অল বেঙ্গল বাস মিনিবাস সমন্বয় সমিতি।

সোমবার শিলিগুড়ি সার্কিট হাউসে প্রশাসনের তরফে ডাকা বৈঠকে উপস্থিত থেকে তারা সে কথা জানিয়েছেন। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেবও। অল বেঙ্গল বাস মিনিবাস সমন্বয় সমিতির দাবি, যারা ধর্মধট ডেকেছে তারা এখনও সরকারকে কিছু জানায়নি। তা ছাড়া সারা রাজ্যে ৯০ শতাংশ অল বেঙ্গল বাস মিনিবাস সমন্বয় সমিতির গাড়ি চলে। তারা ধমর্ঘটে কেউ সামিল হবে না।

পর্যটনমন্ত্রী বলেন, ‘‘কলকাতার কোনও একটি সংগঠন ১-২ ফেব্রুয়ারি রাজ্য জুড়ে বাস ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে শোনা যাচ্ছে। তাদের সমর্থক কম। উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন এলাকার বিশেষ করে শিলিগুড়ি, দার্জিলিং এবং লাগোয়া এলাকার বাস মালিকদের নিয়ে বৈঠক করা হল। তারা কেউ ধর্মঘটে যাবেন না। ৯৫ শতাংশ মালিক ধর্মঘট চাইছে না। উত্তরবঙ্গেও এর কোনও প্রভাব পড়বে না।’’

তিনি জানান, মুখ্যমন্ত্রী চান না কোনও ভাবে স্বাভাবিক জীবন যাপন ব্যাহত হোক। দাবি নিয়ে আলোচনা করছে সরকার। কিন্তু বাস আটকে দিযে কিছু করা ঠিক নয়। বেশিরভাগ বাস মালিদের সঙ্গেই আলোচনা করছে সরকার। অল বেঙ্গল বাস মিনিবাস সমন্বয় সমিতির রজ্য সভাপতি তথা উত্তরবঙ্গ শাখার সম্পাদক প্রণব মানি বলেন, ‘‘তাদের বাস চলবে কি চলবে না সেটা যাঁরা ঘর্মঘট ডেকেছেন তাদের ’সংগঠনের ব্যাপার। সারা রাজ্যে তাদের সে রকম সংগঠন নেই বলেই জানি। আমাদের সংগঠন ২৩টি জেলায় রয়েছে। ঝাড়গ্রামে সম্প্রতি সংগঠনের সাধারণ সভা হয়। সেখানেও ধর্মঘটের বিষয়টি নিয়ে আলোচলা হয়েছে। আমরা কেউ সামিল হব না।’’

প্রণববাবুদের সংগঠনের দাবি, তেলের দাম বৃদ্ধি, বিমার টাকা বৃদ্ধি নিয়ে যে সমস্যায় বাস মালিকদের পড়তে হচ্ছে তা নিয়ে উত্তরবঙ্গে পর্যটনমন্ত্রীর সঙ্গে তারা দুই দফায় বৈঠক করেছেন। প্রথম বৈঠকে মন্ত্রী সমস্যার বিষয়গুলি যা আগেই বিভিন্ন সময় দেওয়া হয়েছে তা ফের জানাতে বলেছিলেন। পরের বৈঠকে জানানো হয়েছে। মন্ত্রী বিষয়টি অনুধাবন করেছেন এবং ফেব্রুয়ারিতে ফের বৈঠকে বসবেন বলে তাঁরা জানিয়েছেন।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন