উত্তরবঙ্গ সফরে আসার দু’দিন আগে শিলিগুড়ির বেঙ্গল সাফারি পার্কের তিন বাঘ শাবকের নাম দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ওই শাবকগুলি পার্কের রয়্যাল বেঙ্গল টাইগার শীলার তিন সন্তান।

কলকাতায় বনমন্ত্রী বিনয়কৃষ্ণ বর্মনের দফতরে ওই তিন শাবকের নাম দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী চিঠি পাঠিয়ে দিয়েছেন। শুক্রবার কলকাতা পৌঁছে তা জেনে বনমন্ত্রী তা বনকর্তা ও বেঙ্গল সাফারি পার্কের আধিকারিকদের জানিয়েছেন। মুখ্যমন্ত্রী শাবকদের জন্য তিনটি নাম রেখেছেন- ‘কিকা’, ‘ইকা’ এবং ‘রিকা’। বন দফতর সূত্রের খবর, কোন শাবকের কোন নাম হবে হবে তা বেঙ্গল সাফারি পার্কের অফিসারেরা দ্রুত ঠিক করবেন।

বনমন্ত্রী বলেন, ‘‘আমরা মুখ্যমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞ। কিছু আগে আমি মুখ্যমন্ত্রীর কাছে চিঠি লিখে শাবকগুলির নামকরণের জন্য বলেছিলাম।’’

গত এক বছর ধরে সাফারি পার্কে পরপর তিনটি রয়্যাল বেঙ্গল টাইগার আনা হয়। নন্দনকানন, জামশেদপুর চিড়িয়াখানা থেকে তিনটি বাঘ আনা হয়। প্রথমে আনা হয় শীলা এবং স্নেহাশিসকে। পরে আসে বিভান। ২০ হেক্টরের ঘেরাটোপের স্বাভাবিক জঙ্গলে শীলা এবং স্নেহাশিসকে ছাড়া হয়। গত মে মাসে শীলা তিনটি সন্তান প্রসব করে। কিছুদিন আগে বন কর্তারা দেখেছেন, তিনটি শাবকই মহিলা। এরমধ্যে একটি সাদা রয়্যাল বেঙ্গল। আপাতত মা শীলার সঙ্গে আলাদা ঘেরাটোপে সিসিটিভির নজরদারিতে শাবকগুলি বড় হয়ে উঠছে। ফোটানো জল, মায়ের দুধ ছাড়াও মাংসের টুকরো চিবোতে শিখছে শাবকগুলি। বেঙ্গল সাফারিরর আধিকারিকেরা জানান, অন্তত ১ বছর পরে শাবকগুলিকে আলাদা করা হবে।