এনআরসির বিরুদ্ধে মালদহের কালিয়াচকে পথে নামল কংগ্রেস। এ নিয়ে শনিবার কালিয়াচকে প্রতিবাদ মিছিল ও একটি প্রতিবাদ সভা করে তারা। কর্মসূচিতে ছিলেন দলের দক্ষিণ মালদহের সাংসদ আবু হাসেম খান চৌধুরী (ডালু), সুজাপুরের বিধায়ক ইশা খান চৌধুরী-সহ জেলা নেতৃত্ব। 

এ দিন বিকেলে কালিয়াচকের থানা রোডে দলের ব্লক কার্যালয়ের সামনে থেকে এনআরসির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ মিছিল শুরু হয়। মিছিল আসে কালিয়াচক চৌরঙ্গী হয়ে বাসস্ট্যান্ড পর্যন্ত। পরে বাসস্ট্যান্ডে একটি প্রতিবাদ সভা হয়। সভায় বক্তব্য রাখেন সাংসদ ডালু, বিধায়ক ইশা, জেলা কংগ্রেসের কার্যকরী সভাপতি কালীসাধন রায়, ব্লক কংগ্রেস সভাপতি মতিউর রহমান প্রমুখ। প্রতিবাদ সভায় ভিড় ছিল উল্লেখযোগ্য। ডালু অভিযোগ করেন, এনআরসির জেরে অসমে ১৯ লক্ষ মানুষ বিপাকে পড়েছেন। তাঁরা আজ অনুপ্রবেশকারী হিসেবে চিহ্নিত। বিজেপি এই রাজ্যেও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবে এনআরসি চালু করতে চাইছে। ধর্মীয় মেরুকরণের রাজনীতি করতে চাইছে তারা। তৃণমূল হাতগুটিয়ে বসে রয়েছে। কিন্তু কংগ্রেস বিজেপির এই চক্রান্তের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাবে। 

বিধায়ক ইশা বলেন, ‘‘বিজেপি এনআরসির মাধ্যমে সাম্প্রদায়িকতার রাজনীতি কায়েম করতে চাইছে। ফলে মানুষ দিশেহারা হয়ে পড়েছেন। মানুষকে সচেতন করতে ও এনআরসির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে আমরা কংগ্রেস মালদহ জেলা জুড়ে পথে নেমেছি। এ দিন কালিয়াচক থেকে সেই কর্মসূচি শুরু করা হল। এবারে জেলার সমস্ত ব্লক, অঞ্চল ও বুথে বুথে প্রতিবাদ সভা ও মিছিল করা হবে। মানুষকে সচেতন করা হবে।’’ 

বিজেপি অবশ্য কংগ্রসের প্রচারকে আমল দিতে নারাজ। দলের জেলা সভাপতি গোবিন্দ মণ্ডল বলেন, ‘‘কংগ্রেস এখন সাইনবোর্ড হয়ে গিয়েছে। আমরা এনআরসির পক্ষে জেলায় পাল্টা প্রচার চালাব।’’