• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

করোনা রুখতে সোমবার থেকে বন্ধ স্কুল, কলেজও

Corona Prevention
মাস্ক পরে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থী। জলপাইগুড়ি। ছবি: সন্দীপ পাল

করোনাভাইরাস সংক্রমণের জেরে সরকারি নির্দেশে রাজ্যের অন্য জায়গার মতো দার্জিলিং জেলা তথা শিলিগুড়ি এবং জলপাইগুড়ির সমস্ত স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয় আগামী কাল, সোমবার থেকে বন্ধ থাকছে। তবে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা এবং একাদশ শ্রেণির পরীক্ষা চলবে বলে জেলা স্কুল পরিদর্শকের দফতর থেকে জানানো হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট স্কুল পরিদর্শকদের দফতর থেকে জানানো হয়েছে, যে নির্দেশ রয়েছে তাতে আপাতত ৩১ মার্চ পর্যন্ত সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে বলা হযেছে। কবে স্কুল, কলেজ খুলবে তা অবশ্য এখনও জানানো হয়নি। এই সময়সীমা বাড়তে পারে বলে অনেকের ধারণা। এই পরিস্থিতিতে উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তন অনুষ্ঠান আরও পিছিয়ে পড়ল বলেই মনে করছেন শিক্ষক-পড়ুয়ারা।
উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সুবীরেশ ভট্টাচার্য বলেন, ‘‘সরকারি নির্দেশ মেনে করোনাভাইরাস সংক্রমণের মোকাবিলায় বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ রাখা হচ্ছে। আপাতত ৩১ মার্চ পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকছে। পরবর্তী পদক্ষেপ জানানো হবে।’’ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে থাকা কলেজগুলোও বন্ধ থাকছে সোমবার থেকে। শিলিগুড়ি কলেজের অধ্যক্ষ সুজিত ঘোষ জানান, প্রিন্সিপাল কাউন্সিল থেকে বিষয়টি জানানো হয়েছে। সোমবারই কলেজে নোটিস নিয়ে বন্ধ রাখার বিষয়টি জানান হবে। ৭ এপ্রিল থেকে কলেজগুলোতে পরীক্ষা শুরুর কথা। পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হলে পরীক্ষা পিছনোর সম্ভাবনাও অনেকে জানিয়েছেন। 


করোনাভাইরাস সংক্রমণের পরিস্থিতিতে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্তে সন্তোষ প্রকাশ করেছে বামপন্থী শিক্ষক সংগঠনগুলি। বামপন্থী শিক্ষক সংগঠন এবিপিটিএ’র জলপাইগুড়ি জেলা সম্পাদক বিপ্লব ঝাঁ বলেন, ‘‘রাজ্য সরকার সময়পোযোগী সিদ্ধান্ত নিয়েছে। করোনাভাইরাস নিয়ে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন সকলেই। বিদ্যালয়গুলোতে ছুটি ঘোষণা করায় আমরা সরকারকে ধন্যবাদ জানাই।’’
বামপন্থী শিক্ষক সংগঠন এবিটিএ’র জলপাইগুড়ি জেলা সম্পাদক প্রসেনজিৎ রায় জানান, তাঁরাও এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাচ্ছেন। একই সঙ্গে একাদশ শ্রেণির ছাত্র-ছাত্রীদের জন্যেও স্বাস্থ্য পরীক্ষার ব্যবস্থা নেওয়া উচিত বলে জানান তিনি।


তৃণমূল প্রভাবিত শিক্ষক সংগঠন ডব্লিউবিটিএসটিএ’র জলপাইগুড়ি জেলা আহ্বায়ক অঞ্জন দাসের কথায়, ‘‘খুব ভাল সিদ্ধান্ত।’’ জলপাইগুড়ির বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলিও রাজ্য সরকারের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে। বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সারদা শিশু তীর্থের প্রধান আচার্য সন্তোষ সাহা বলেন, ‘‘আমরা সোমবার অভিভাবকদের বিষয়টি জানাব। মঙ্গলবার থেকে বিদ্যালয় বন্ধ থাকবে। তবে শিক্ষক শিক্ষিকারা আসবেন।’’
 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন