• নিজস্ব সংবাদদাতা 
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

রায়গঞ্জে ডিজের তাণ্ডবে অতিষ্ঠ পাড়া, পুলিশ নিষ্ক্রিয়ই

DJ
শব্দদানব: কালীপুজোর বিসর্জনে ডিজের দাপট রায়গঞ্জের রাস্তায়। বৃহস্পতিবার। ছবি: চিরঞ্জীব দাস

Advertisement

ডিজে বক্সের আওয়াজে কান পাতা দায়। পাশে দাঁড়ানো কারও কথা পর্যন্ত শোনা যাচ্ছে না। সামনে রাস্তার উপর চলছে উদ্দাম নাচ আর হল্লা। সেইসঙ্গে তীব্র আলোর ঝলকানি। বুধবার রাতে এরকমই চলমান দক্ষযজ্ঞ কাণ্ডের মধ্যে দিয়ে কালীপ্রতিমার বিসর্জনের শোভাযাত্রার সাক্ষী থেকেছে রায়গঞ্জের বিভিন্ন এলাকা।  

অভিযোগ, পুলিশকর্মীরা পুতুলের মতো দাঁড়িয়ে থেকেছেন। তাঁদের সামনে দিয়েই তীব্র শব্দে ডিজে বক্স বাজিয়ে নেচেছেন বিভিন্ন আয়োজক ক্লাবের সদস্যেরা। পুলিশের সামনেই রাস্তার মাঝে ফাটানো হচ্ছে নিষিদ্ধ শব্দবাজি। এমনও অভিযোগ উঠেছে, শোভাযাত্রার ভিড়ে প্রকাশ্যেই ঠান্ডা পানীয়ের বোতলে মদ মিশিয়ে খাওয়া চলেছে। সন্ধে থেকে গভীর রাত পর্যন্ত শব্দ ও বায়ূ দূষণের মাত্রা চরমে ওঠে বলে অভিযোগ। রায়গঞ্জ পুলিশ জেলার সুপার সুমিত কুমারের অবশ্য বক্তব্য, পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। আইনানুগ ব্যবস্থা নেবে।

নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক জেলা পুলিশের এক কর্তা স্বীকার করেছেন, আইনশৃঙ্খলার অবনতির আশঙ্কাতেই পুলিশ জোর করে ডিজে বক্স বাজানো ও শব্দবাজি ফাটানো বন্ধ করার চেষ্টা করেনি। পুলিশ প্রতিটি ক্লাবের বিসর্জনের শোভাযাত্রা দৃশ্য ভিডিয়ো রেকর্ডিং করেছে। বিভিন্ন বেআইনি কাজকর্মে অভিযুক্ত ও ডিজে বক্স ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

শহরের ছ’টি ক্লাব জেলখানা মোড়, কসবা মোড় ও বিদ্রোহী মোড় থেকে শিলিগুড়ি মোড় পর্যন্ত শোভাযাত্রা করে স্থানীয় কুলিক নদীতে প্রতিমা বিসর্জন দেয়। শোভাযাত্রা চলাকালীন শহরের আইনশৃঙ্খলা ও যান নিয়ন্ত্রণ স্বাভাবিক রাখতে কলেজপাড়া, হাসপাতাল রোড, বিদ্রোহী মোড়, বিবেকানন্দ মোড়, বকুলতলা মোড়, মহাত্মাগাঁধী রোড, পুর বাসস্ট্যান্ড, বিবিডি মোড়, ঘড়িমোড়, মোহনবাটী, নেতাজি সুভাষ রোড, বিধাননগর মোড়, দেহশ্রী মোড়, সুপারমার্কেট, আশা টকিজ় মোড় ও শিলিগুড়ি মোড়ে বহু পুলিশকর্মীকে মোতায়েন করা হয়েছিল।

বাসিন্দাদের অভিযোগ, বিভিন্ন ক্লাবের সদস্যরা শহরজুড়ে পুলিশকর্মীদের সামনে দিয়ে ডিজে বক্স বাজিয়ে নাচতে নাচতে কালীপ্রতিমা বিসর্জন দিতে নিয়ে গিয়েছেন। পাশাপাশি, শোভাযাত্রা চলাকালীন তাঁরা পুলিশ কর্মীদের সামনেই শহরের বিদ্রোহী মোড় থেকে শিলিগুড়ি মোড় পর্যন্ত রাস্তার মাঝে নিষিদ্ধ শব্দবাজি ফাটিয়েছেন। শোভাযাত্রার ভিড়ে একাধিক ক্লাবের সদস্যদের প্রকাশ্যেই ঠাণ্ডা পানীয়ের বোতলে মদ মিশিয়ে তা গলায় ঢেলে মাতোয়ারা হতে দেখা গিয়েছে।

রায়গঞ্জের উকিলপাড়া ও দেবীনগর এলাকার বাসিন্দা দুই পরিবেশপ্রেমী কৌশিক চক্রবর্তী ও চন্দ্রনারায়ণ সাহার বক্তব্য, পুলিশের নিষ্ক্রিয়তার জেরে এবছর দীপাবলিতে রায়গঞ্জ-সহ জেলা জুড়ে নিষিদ্ধ শব্দবাজির দাপটে শব্দ ও বায়ূ দূষণ চরমে ওঠে। এবার পুলিশের সামনেই শহরজুড়ে ডিজে বক্স বাজিয়ে ও নিষিদ্ধ শব্দবাজি ফাটিয়ে বিভিন্ন ক্লাব প্রতিমা বিসর্জন দিয়েছে। সুস্থ পরিবেশের পক্ষে যা অত্যন্ত ভয়ঙ্কর ঘটনা।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন