• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

জমি দখলে হুঁশিয়ারি পর্যটনমন্ত্রীর

Goutam Deb
রাস্তার কাজ দেখছেন পর্যটনমন্ত্রী। মঙ্গলবার। নিজস্ব চিত্র

রাস্তা নির্মাণের কাজ দেখতে গিয়ে সরকারি জমি দখল ঘিরে বাসিন্দাদের সতর্ক করলেন পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব। প্রয়োজনে জমি দখল করে গড়া নির্মাণ ‘বুলডোজার’ দিয়ে ভেঙে দেওয়ার হুমকিও দিয়েছেন মন্ত্রী। এলাকাটি গৌতম দেবের বিধানসভা ক্ষেত্র ডাবগ্রাম ফুলবাড়ি বিধানসভার মধ্যে রয়েছে। পুরভোটের মুখে মন্ত্রীর এই মন্তব্যকে এলাকার একটি বড় অংশের মানুষ স্বাগত জানিয়েছেন। তাঁরা অবশ্য বলেছেন, ‘‘বিধায়ক বা মন্ত্রী জমি দখল নিয়ে বরাবর বলে আসছেন। শহরের এই অংশের মানুষ সেই কাজ দেখতে চান।’’

মঙ্গলবার সকাল ১১টা নাগাদ মন্ত্রী পুরসভায় ৪১ নম্বর ওয়ার্ডের একটি রাস্তার কাজ দেখতে যান। সেখানে রাস্তায় ধারে চলে আসা সীমানা প্রাচীর, বাড়ির সামনের অংশ দেখে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তারপরেই ঘোষণা করেন, সরকারি জমি মেপে দেখা হবে। দখলদারি থাকলে তা ভেঙে ফেলার কথা বলেন। এ দিন মন্ত্রী বলেন, ‘‘১-২ জনের জন্য শতাধিক মানুষ সমস্যায় থাকবে। এটা চলবে না। সবাই আমার পরিচিত লোক। মানুষের স্বার্থে রাস্তা তৈরি হবেই। তারজন্য কী ভাবে কাজ করতে হয় আমার জানা আছে।’’ ওয়ার্ডটি তৃণমূলের। এ দিনই সকালে কাউন্সিলরের অফিস অন্য একটি রাস্তা সংস্কারের দাবিতে ঘেরাও করেন বাসিন্দাদের একাংশ। তখন তৃণমূলের বিরুদ্ধে স্লোগান দিয়ে রাস্তার দাবিতে ওই বাসিন্দারা সরব হন।

ওয়ার্ডের বড়বাড়ি এলাকায় ৩ কোটি টাকা খরচ করে একটি রাস্তা তৈরি হচ্ছে। পূর্ত দফতর কাজ করছে। কাজে স্থানীয় পঞ্চায়েত, বিদ্যুৎ বণ্টন সংস্থা, জনস্বাস্থ্য কারিগরি দফতরও সহযোগিতা করছে। কিন্তু কয়েকটি ক্ষেত্রে রাস্তা চওড়া করা নিয়ে সমস্যা দেখা দেয়। এ দিন মন্ত্রী এলাকায় যান। সেখানে গিয়ে একটি সীমানা প্রাচীর, বাড়ির সামনের অংশ দেখে মন্ত্রীর সন্দেহ হয়। তারপরেই তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

কিছুদিন আগে ফুলবাড়ি এলাকায় একটি অনুষ্ঠানে গিয়ে সরকারি জমি দখল নিয়ে জমি মাফিয়াদের সতর্ক করেছিলেন মন্ত্রী। তিনি জানিয়ে ছিলেন, কোথাও কোনও সরকারি জমি দখল করলে পুলিশ-প্রশাসন ব্যবস্থা নেবে। সেক্ষেত্রে রাজনৈতিক পরিচয় দেখা হবে না। গত বছর পূর্ত দফতরের জমি দখলের অভিযোগে তৃণমূল নেতা হিম্মত সিংহ চৌহানকে পুলিশ গ্রেফতার করেছিল। তারপরে এনজেপি, ইস্টার্ন বাইপাস, উত্তরকন্যা, মাটিগাড়া, ফুলবাড়িতেও পুলিশি ধরপাকড় চলে। এ বার সরকারি জমি দখল করে বাড়ি তৈরির বিরুদ্ধেও সরব হলেন মন্ত্রী। তিনি বলেছেন, ‘‘কারও ব্যক্তিগত জমিতে আমরা হাতও দেব না। তবে সরকারের সম্পত্তি দখল করাটা বরদাস্ত করা হবে না।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন