• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

অভব্যতা মদ্যপ জয়েন্ট বিডিওর

Alcohol
—প্রতীকী ছবি।

এলাকায় মদ বিরোধী আন্দোলন গড়ে তুলছিল প্রমীলা বাহিনী। এ বার তাঁদের হাতে ‘বমাল পাকড়াও’ খোদ আলিপুরদুয়ার-১ নম্বর ব্লকের জয়েন্ট বিডিও নিখিলচন্দ্র সরকার। প্রমীলা বাহিনীর অভিযোগ, রবিবার রাত দশটা নাগাদ ওই ব্লকের বাবুরহাটে তাঁদের হাতে ধরা প়ড়ার পরে মদ্যপ নিখিলবাবু তাঁদের সঙ্গে অভব্যতাও করেন। তখন তাঁর মাথায় জল ঢেলে দেন প্রমীলা বাহিনীর সদস্যরা। 

এই ঘটনায় ক্ষুব্ধ আলিপুরদুয়ার- ১ ব্লকের বিডিও শ্রেয়সী ঘোষ বলেন, ‘‘ওঁর বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে৷’’ জেলাশাসক নিখিল নির্মলও ওই আধিকারিকের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছেন৷ দফতর সূত্রে খবর, জয়েন্ট বিডিও মদ খেয়ে অফিসেও আসতেন।

প্রশাসন সূত্রের খবর, সম্প্রতি জয়েন্ট বিডিও-র বদলির নির্দেশ এসে গিয়েছে। রবিবারের ঘটনার পরে আর দেরি না করে এখনই তাঁকে ‘রিলিজ’ করে দিতে চাইছেন জেলা প্রশাসনের কর্তারা৷ যতবার ফোন করা হয়েছে, জয়েন্ট বিডিও-র মোবাইল বন্ধ ছিল। তিনি এসএমএসেরও জবাব দেননি।  

স্থানীয় সূত্রের অভিযোগ, এই ব্লকের বিভিন্ন জায়গায় সন্ধ্যা হলেই দেদারে মদের আসর বসে৷ চলে বেআইনি মদের কারবারও৷ এ সবের বিরুদ্ধে এলাকার একদল মহিলা একজোট হয়ে বাহিনী গড়ে তোলেন৷

রবিবার ব্লকের একটি গ্রামে ‘আপনার পঞ্চায়েত’ কর্মসূচি ছিল৷ অভিযোগ, তার পরই মদ্যপান করেন ওই আধিকারিক৷ একটি গাড়িতে তাঁকে বাবুরহাটে নামিয়ে দেয়৷ কিন্তু টাল সামলাতে না পেরে রাস্তার ধারে শুয়ে পড়েন তিনি৷ প্রমীলা বাহিনীর এক সদস্যের দাবি, তাঁকে বাড়ি চলে যেতে বললে উল্টে তিনি অভব্যতা শুরু করেন। প্রমীলা বাহিনীর সদস্য নীরবালা রায়ের প্রশ্ন, ‘‘প্রশাসনের কর্তারাই যদি এমন করেন, তা হলে অন্যদের কী ভাবে বোঝাব?’’ 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন