• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

‘রাস্তা ভাঙা, স্যর দেখুন’

Goutam Deb
ভোট-প্রচারে গৌতম। নিজস্ব চিত্র

Advertisement

‘‘কত দিন আর রাস্তা ভাঙা থাকবে?’’— কালিয়াগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনে তৃণমূল প্রার্থীর নির্বাচনী প্রচারে বেরিয়ে এলাকাবাসীর একাংশের এমনই প্রশ্নের মুখে পড়লেন রাজ্যের পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব।

হুডখোলা গাড়িতে এ দিন বরুয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের বিভিন্ন এলাকায় রোড-শো করেন গৌতম। স্থানীয় সূত্রে খবর, বেলা সাড়ে ১১টা নাগাদ তিনি ওই গ্রাম পঞ্চায়েতের হরিগ্রাম এলাকায় পৌঁছন। একটি রাস্তার মোড়ে এক দল এলাকাবাসী আগে থেকেই ভিড় করে দাঁড়িয়েছিলেন। তাঁদের মধ্যে কয়েক জন গৌতমকে বলেন— ‘‘অনেক দিন ধরে এলাকার দু’টি গুরুত্বপূর্ণ রাস্তা ভাঙাচোরা অবস্থায় পড়ে রয়েছে। স্যর, একবার দেখুন। আর কতদিন রাস্তা ভাঙা থাকবে?’’

এলাকা সূত্রে জানা গিয়েছে, মন্ত্রীকে বাসিন্দাদের সেই প্রশ্নে দৃশ্যতই অস্বস্তিতে পড়েন তৃণমূল প্রার্থী তপন দেবসিংহ। তিনি সঙ্গে সঙ্গে মাইক হাতে নিয়ে বলেন, ‘‘এই গ্রাম পঞ্চায়েত বিজেপির দখলে রয়েছে। বিজেপির রাজনৈতিক বিরোধিতার জেরে তৃণমূল পরিচালিত উত্তর দিনাজপুর জেলা পরিষদ অনেক চেষ্টা করেও রাস্তা মেরামতের কাজ শুরু করতে পারছে না। আমাকে বিধায়ক করুন। কথা দিচ্ছি রাজ্য সরকারের উন্নয়নের জোয়ারে আপনাদের এলাকার ছবি বদলে যাবে।’’ বিজেপির জেলা সাধারণ সম্পাদক বিশ্বজিৎ লাহিড়ী বলেন, ‘‘রাজ্য সরকারের ব্যর্থতা ঢাকতে তৃণমূল নেতা-মন্ত্রীরা বিজেপির বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছেন।’’

হরিগ্রাম এলাকার বাসিন্দাদের অভিযোগ, অনেক দিন ধরে হরিগ্রাম থেকে আটকোরা পর্যন্ত দুই কিলোমিটার ও মালঞ্চা থেকে দধিকোটবাড়ি পর্যন্ত পাঁচ কিলোমিটার রাস্তা বেহাল হয়ে রয়েছে। বৃষ্টি হলে ওই রাস্তায় জলকাদা জমে। বাসিন্দারা দুর্ভোগে পড়েন। বেহাল রাস্তায় মাঝেমধ্যে সাইকেল, মোটরবাইক, ভুটভুটি ও ছোটগাড়ি উল্টে বাসিন্দারা জখমও হন। ওই রাস্তা দিয়ে অ্যাম্বুল্যান্সে রোগীদের হাসপাতালে নিয়ে যেতে দুর্ভোগ চরমে উঠেছে।

জেলা পরিষদের তৃণমূল সভাধিপতি কবিতা বর্মণের বক্তব্য, ‘‘বিজেপি যতই বিরোধিতা করুক, নির্বাচনী আচরণবিধি উঠে গেলে জেলা পরিষদের তরফে ওই দু’টি রাস্তা মেরামত করা হবে।’’ এ দিন বরুয়া ও বরুণা গ্রাম পঞ্চায়েতের বামনগ্রাম, শিয়াগ্রাম, হরিগ্রাম, ছাতিয়ান, কাচিমূহা, বাজিতপুর, মাজিয়ার ছাড়াও কালিয়াগঞ্জ শহরের বিভিন্ন এলাকায় রোড শো করেন গৌতম। তাঁর সঙ্গে ছিলেন কোচবিহারের প্রাক্তন তৃণমূল সাংসদ পার্থপ্রতিম রায়, তৃণমূলের রাজ্য সম্পাদক অসীম ঘোষ, রায়গঞ্জের পুরপ্রধান সন্দীপ বিশ্বাস।

প্রচারে গৌতম বলেন, ‘‘এনআরসি রুখতে ও উন্নয়নের স্বার্থে তৃণমূলকে জয়ী করুন।’’ বিজেপির জেলা সভাপতি নির্মল দামের কথায়, ‘‘এনআরসি লাগু হলেও কালিয়াগঞ্জের বৈধ নাগরিকদের কোনও সমস্যা হবে না। তৃণমূল সবাইকে ভুল বোঝাচ্ছে।’’

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন